অঝরে কাঁদলো শিক্ষার্থীরা সহাপাঠী হত্যার বিচার চেয়ে

Print

বরিশাল শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র সাইদুর রহমান হৃদয় হত্যার বিচার দাবিতে মানববন্ধন এবং বিক্ষোভ মিছিল করেছে বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষার্থীরা।
সোমবার বেলা ১১টার দিকে সরকারী জেলা স্কুল, সরকারী মডেল স্কুল এন্ড কলেজ, শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং শহীদ আরজুমনি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কয়েকশ’ শিক্ষার্থী একযোগে অশ্বিনী কুমার হলের সামনে মানববন্ধন করে।

এ সময় তাদের হাতের ব্যানার এবং প্লাকার্ডে লেখা ছিলো ‘ইভটিজিং এর প্রতিবাদ করায় মেধাবী ছাত্র হৃদয় হত্যাকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতার এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই, হৃদয় হত্যাকারীদের ফাঁসি চাই, ইভটিজিং বন্ধ করুনসহ বিভিন্ন শ্লোগান’। এসব শ্লোগানের সময় তারা আবেগ তাড়িত হয়ে অঝেরে কাঁদতে থাকে।
হৃদয়ের সহপাঠীরা বলেন, মেধাবী ছাত্র হৃদয় সংঘর্ষ করার মতো ছাত্র ছিলো না। যৌন হয়রানীর প্রতিবাদ করায় তাকে স্কুলে থেকে ডেকে খোলা মাঠে নিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। তারা আর কোন হৃদয়কে হারাতে চান না। তারা হৃদয় হত্যাকারীদের ফাঁসি চান।
বিপুল সংখ্যক শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণে দীর্ঘ মানববন্ধন করায় নগরীর ব্যস্ততম সদর রোডে ভয়াবহ যানজটের সৃষ্টি হয়। তবে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। প্রায় ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন শেষে তারা বিক্ষোভ মিছিল সহকারে স্ব-স্ব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চলে যায়।
এদিকে হৃদয় হত্যার সাথে জড়িত বাকি চারজনকে সোমবার আদালতে সোপর্দ করার কথা জানিয়েছে পুলিশ। গত শনিবার সকাল ১০টার দিকে শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর সাইদুর রহমান হৃদয় গাজীকে সংলগ্ন পরেশ সাগর মাঠে ডেকে নিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে কয়েক কিশোর। এ ঘটনায় তার বাবা ভান্ডারিয়া উপজেলার চিংগুরিয়া গ্রামের জিয়াউর রহমান শাহীনের দায়ের করা মামলায় পুলিশ ৬ জনকে গ্রেফতার করে। এদের মধ্যে ২ জন গত রবিবার আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দেয়। তাদের ওইদিনই কারাগারে পাঠানো হয়। বাকী ৪ জনকে সোমবার আদালতে সোপর্দ করার কথা জানিয়েছে পুলিশ।
এদিকে স্কুল ছাত্র হৃদয় হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে নগরীর সদর রোডে পৃথক মানববন্ধন করে ছাত্র ইউনিয়ন। সোমবার সকালে নগরীর সদর রোডে মহানগর ছাত্র ইউনিয়নের ব্যানারে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 163 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ