আইএসে অর্থায়নকারীদের তালিকায় বাংলাদেশির নাম!

Print

যুক্তরাজ্যে সন্ত্রাস পরিকল্পনায় অর্থায়নে কিছু প্রতিষ্ঠানের একটি নেটওয়ার্ক ব্যবহার করেছে জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস)। সেসব প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিলেন এক বাংলাদেশিও।
যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় তদন্ত ব্যুরোর (এফবিআই) কিছু নথি ঘেঁটে এমন তথ্য পেয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ‘দ্য সানডে টাইমস’।

এফবিআইর নথি থেকে জানা যায়, স্পেনে যে নজরদারি প্রযুক্তি পাওয়া গেছে, তার সঙ্গে যুক্তরাজ্যের সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর যোগসূত্র পাওয়া গেছে।
নথি থেকে জানা যায়, স্পেনের মাদ্রিদে নজরদারি উপকরণ সরবরাহ করা প্রতিষ্ঠানগুলোর একটি ভুয়া পরিচালক ও শেয়ারহোল্ডারের নাম ব্যবহার করেছে। ‘পিটার সরেন’ ছদ্মনামটি ব্যবহার করেছিলেন বাংলাদেশ থেকে যুক্তরাজ্যে যাওয়া সাইফুল সুজন, যিনি একজন তথ্যপ্রযুক্তি (আইটি) বিশেষজ্ঞ। তিনি ওই প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্তাব্যক্তি হিসেবে কাজ করেছেন।
তিন বছর আগে যুক্তরাজ্যের সাউথ ওয়েলস ছেড়ে সপরিবারে আইএসে যোগ দিতে সিরিয়ার উদ্দেশে রওনা হন সাইফুল। পরবর্তী সময়ে সিরিয়ায় আইএসের কার্যত রাজধানী রাকায় মার্কিন ড্রোনা হামলায় নিহত হন তিনি।
এফবিআইর নথি থেকে আরো জানা যায়, সুজন ও তাঁর সঙ্গীরা কয়েকটি কোম্পানিকে একত্র করে ইবাকস নামে একটি আইটি প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলেন। প্রতিষ্ঠানটি বিভিন্ন রেস্তোরাঁয় ওয়েবসাইট ও প্রিন্টিং সেবা দিত। যুক্তরাজ্যের কার্ডিফের ত্রেমোরফা এলাকায় আলেকজান্দ্রা গেট বিজনেস পার্কে তাদের একটা অফিস ছিল।
এফবিআই ও যুক্তরাজ্যের সন্ত্রাসবিরোধী পুলিশের যৌথ তদন্তে দেখা যায়, সুজন সিরিয়া যাওয়ার পর তাঁর ও সঙ্গীদের কয়েকটি কোম্পানি আরো অধিকসংখ্যক হারে নাশকতামূলক কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়তে পারে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 212 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ