আইপিএলের নিলামে ৬ বাংলাদেশি ক্রিকেটার

Print

মেহেদী হাসান মিরাজ: আইপিএলের নিলামে আছেন তরুণ এই অফ স্পিনার। ছবি: এএফপি

প্রায় সব ক্রিকেট খেলুড়ে দেশেই এখন ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট হয়। তবে আইপিএলই এর মধ্যে সবচেয়ে জমজমাট। ভারতের ঘরোয়া এই টুর্নামেন্টে যেন তারার মেলা বসে। সেই মেলায় কয়েক মৌসুম ধরেই নিয়মিত বাংলাদেশের সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। গত মৌসুমে আইপিএল মাতিয়েছেন তরুণ পেসার মুস্তাফিজুর রহমান। এবারের আইপিএলে সাকিব যথারীতি তাঁদের আগের দল কলকাতা নাইট রাইডার্সেই খেলবেন। মুস্তাফিজকেও রেখে দিয়েছে তাঁর গত মৌসুমের দল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। আর চলতি মৌসুমের টুর্নামেন্টের জন্য খেলোয়াড়দের নিলামে জায়গা করে নিয়েছেন বাংলাদেশের আরও ছয় ক্রিকেটার।

এই ছয়জন হলেন: তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ, সাব্বির রহমান, এনামুল হক (বিজয়), তাসকিন আহমেদ ও মেহেদি হাসান মিরাজ। প্রত্যেকেরই ভিত্তি মূল্য ৩০ লাখ রুপি।
দেশের ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট বিপিএলের গত আসরে বাংলাদেশের খেলোয়াড়েরা ভালো পারফর্ম করেছেন। বিপিএলের গত মৌসুমটা এক কথায় দুর্দান্ত কেটেছে তামিমের। গত মৌসুমে চিটাগং ভাইকিংসকে নেতৃত্বও দিয়েছেন বাঁহাতি এই ওপেনার। এলিমিনেটরে রাজশাহী কিংসের কাছে হেরে গিয়েছিল তাঁর দল। তাই ১৩টির বেশি ম্যাচ খেলা হয়নি। এই ১৩ ম্যাচেই ৪৭৬ রান নিয়ে আসরের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হয়েছিলেন তামিম।
সাম্প্রতিক ফর্মটা ভালো না গেলেও তামিম বেশ কিছুদিন ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও ধারাবাহিক হয়ে উঠেছেন। এক দফা পুনে ওয়ারিয়র্সের হয়ে ​আইপিএলে খেলা তামিমকে নিয়ে আগ্রহ থাকতে পারে আইপিএলের দলগুলোর।
গত মৌসুমের বিপিএলে বল হাতে ভালো করেছেন বাংলাদেশের দুই তরুণ তাসকিন ও মিরাজ। চিটাগং ভাইকিংসের হয়ে ১১ ম্যাচ খেলে ১৫ উইকেট নিয়েছেন পেসার তাসকিন। আর রাজশাহী কিংসের অফ স্পিনার মেহেদীর উইকেট ছিল ১৫ ম্যাচে ১২টি। দেশের মাটিতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে অসাধারণ বোলিং করা মিরাজ আর অনেক দিন ধরেই বল হাতে ধারাবাহিক পারফর্ম করে যাওয়া তাসকিনও আছেন আইপিএলের নিলামে।
নিলামে আছেন মারকাটারি ব্যাটসম্যান হিসেবে পরিচিতি পেয়ে যাওয়া সাব্বির আর ঠান্ডা মাথার ব্যাটসম্যান মাহমুদউল্লাহ। অনেক দিন ধরেই বাংলাদেশের জাতীয় দলের বাইরে থাকা ওপেনার এনামুলও আছেন নিলামে। তাঁরা তিনজনই সর্বশেষ বিপিএলে ব্যাট হাতে ছিলেন উজ্জ্বল। ১৪ ম্যাচে ৩৯৬ রান নিয়ে টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হয়েছিলেন মাহমুদউল্লাহ। ৩৭৭ রান নিয়ে এর পরেই ছিলেন সাব্বির। ১৩ ম্যাচ খেলে ২৫০ রান করেছিলেন এনামুল।
বাংলাদেশ ক্রিকেট দল কদিন আগে ভারত সফরও করল। ক্রিকেটারদের সম্পর্কে এ সময়ে ভারতীয় মিডিয়ায় বেশ লেখালেখি হয়েছে। এমনিতে আইপিএলে বাংলাদেশি ক্রিকেটারের সংখ্যা খুব কম হলেও এবার প্রতিনিধি বাড়ার সম্ভাবনা আছে। যদিও শ্রীলঙ্কা সফরের কারণে বাংলাদেশের​ বেশির ভাগ তারকা ক্রিকেটার জাতীয় দলে ব্যস্ত থাকবেন। এদিক দিয়ে দেখলে বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের নাও কিনতে পারে দলগুলো।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 94 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ