আজও জাবির রাস্তায় ঢাবি শিক্ষার্থীদের মহড়া, বাস বন্ধ থাকায় শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাহত

Print

আরিফুল ইসলাম আরিফ, জাবি প্রতিনিধি: গত দুইদিনে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) তিনটি বাস ভাংচুরের পর আজ সোমবার সকালে আবারও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে মহড়া দিয়েছে ঢাবি শিক্ষার্থীরা । সকাল সাতটার দিকে নবীনগর থেকে ছেড়ে আসা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি বাসে লাঠিসোটা নিয়ে এ মহড়া দেয় বাসে থাকা শিক্ষার্থীরা ।
এ সময় তারা নানা রকম উত্তেজনাকর শ্লোগান দিতে দিতে ক্যাম্পাস এলাকা ত্যাগ করে । পরে ঢাবির বাসটি সাভারের গেন্ডা বাসস্টান্ড এলাকায় পৌছালে সেখানে রাস্তার অপর পাশে থাকা জাবির একটি বাসকে ধাওয়া দেওয়ার প্রস্তুতি নিতে থাকলে বাসের চালক দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন ।

বাসের চালক মো. শামীম জানান, সকাল সাড়ে সাতটার সময় গেন্ডা এলাকায় কর্মকর্তা- কর্মচারী নেওয়ার জন্য বাস নিয়ে দাড়িয়ে ছিলাম। এ সময় কল্যাণপুর বাস ডিপোর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের লোগো সম্বলিত একটি বিআরটিসির দোতলা বাস রাস্তার অপর পাশে দাড়ায় । বাসভর্তি শিক্ষার্থী ছিল এবং বাসের গেটে থাকা সবার হাতেই স্টাম্প ও বাঁশ ছিল । তাদের কয়েকজন জোরে জোরে বলতে থাকে ওই যে জাহাঙ্গীরনগরের বাস, এ সময় পরিস্থিতি এড়াতে আমি দ্রুত বাস নিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করি ।

এদিকে গতকাল রাতের ঘটনার পর অনাকাক্ষিত পরিস্থিতি এড়াতে জাবি প্রশাসন গতকাল রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল বাস বন্ধের ঘোষণা দেয়। এতে শিক্ষক- শিক্ষার্থীরা ঢাকা থেকে আসতে না পারায় সাময়িকভাবে ব্যাহত হচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম।

বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগে সরেজমিনে দেখা যায়, ঢাকা-ক্যাম্পাস রুটে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস চলাচল বন্ধ থাকায় ঢাকা থেকে অধিকাংশ শিক্ষক বিভাগে এসে উপস্থিত হতে পারেনি। যারা বিভাগে উপস্থিত হয়েছেন তাঁদেরকে পাবলিক বাসে করে আসতে হয়েছে বলে জানা যায়। বাস চলাচল বন্ধ থাকায় বিভাগে উপস্থিত হতে পারেনি ঢাকায় অবস্থানরত বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন শিক্ষার্থীরাও ।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন অফিসে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, প্রতিদিন সকালে ঢাকা থেকে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের বহনকারী প্রায় ১০ টি বাস ক্যাম্পাসের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসলেও আজ কোন বাসই চলাচলা করেনি। ঢাকা থেকে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের বহনকারী কোন বাস ক্যাম্পাসের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসেনি। চলাচল বন্ধ রয়েছে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বহনকারী দুটি বাসও।

বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন শাখার অতিরিক্ত ভারপ্রাপ্ত শিক্ষক মো. শরিফ হোসেন বলেন, গত দুদিন ধরে ঢাকা ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে চলেছে। তাই ঝুঁকি এড়াতে আমরা ঢাকা-ক্যাম্পাস রুটে সব ধরণের যান চলাচল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ফের নিয়মিতভাবে যান চলাচল শুরু হবে।

এদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন অফিসে খোঁজ নিলে তারা জানায় ঢাবি- নবীনগর রুটে আজ কোন বাস চলাচল করেনি।

ঢাবির সহকারী পরিবহন ম্যানেজার মো. আতাউর রহমান বলেন, প্রত্যেকদিন সকালে সাভার-নবীনগর থেকে শিক্ষার্থীদের বহনকারী ‘হেমন্ত’ সহ কর্মচারীদের বাস ক্যাম্পাসের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসলেও আজ কোন বাস এই রোডে চলাচল করেনি। দুই বিশ্ববিদ্যালয়ের মাঝে সমঝোতা পৌছানোর আগ পর্যন্ত এই রুটে ক্যাম্পাসের বাস চলাচল বন্ধ রাখার সিন্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

এই ব্যাপারে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর তপন কুমার সাহা বলেন, বিষয়টি সমঝোতার জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সাথে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের আলোচনা চলছে। যারা ঘটনাগুলো ঘটিয়েছে তাদের পরিচিতি শনাক্ত করে শাস্তির আওতায় আনা হবে বলে ঢাবি প্রশাসন আমাদেরকে আশ্বাস দিয়েছেন। তবে আগামীকাল থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস চলাচল স্বাভাবিক থাকতে পারে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 69 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ