আজ স্বপ্নের ফাইনালে ভারতের মুখোমুখি বাংলাদেশ

Print

ভারতের শিলিগুঁড়ি স্বপ্নের মতো সুন্দর একটি জায়গা। প্রকৃতির সঙ্গে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা ফুটবল দলও স্বপ্নের মতো সময় কাটাচ্ছে সেখানে।
একের পর এক সাফল্য এসে ধরা দিচ্ছে অবলিলায়। সাফ মহিলা চ্যাম্পিয়নশিপের চতুর্থ আসরের প্রথম ম্যাচে শক্তিশালী আফানিস্তানকে ৬-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করে বাংলাদেশ। অথচ এই আফগানদের সঙ্গেই বাংলাদেশ পারবে কিনা সেটা নিয়ে ছিল বিস্তর সন্দেহ!

এরপর তিন-তিনবারের চ্যাম্পিয়ন ভারতকে রুখে দিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে সেমিফাইনালে উঠে বাংলাদেশের মেয়েরা। দাপট অব্যাহত রাখল সেখানেও। সোমবার মালদ্বীপের জালে অর্ধডজন গোল করে ইতিহাস গড়ে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল। বাংলাদেশের নারী ফুটবলের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ফাইনালের টিকিট পায়।
বুধবার বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় শিরোপা নির্ধারণী ফাইনালে ভারতের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। ভারত দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে শক্তিশালী দল। মহিলা সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের গেল তিন আসরের শিরোপাই তারা জিতেছে। ফাইনাল খেলার বিস্তর অভিজ্ঞতা রয়েছে। অন্যদিকে বাংলাদেশ এই প্রথম ফাইনালে উঠেছে।
ফাইনালে খেলার অভিজ্ঞতাহীন বাংলাদেশ পারবে কী শিরোপা নিয়ে ঘরে ফিরতে? ফাইনালে উঠে যে ইতিহাস গড়েছে সেটাতে চূড়ান্ত রঙ-তুলির আচর দিয়ে শিরোপা জিততে? সেটা সময়ই বলে দেবে।
তবে বাংলাদেশ জেতার জন্যই আগামীকাল মাঠে নামবে। সেক্ষেত্রে অনুপ্রেরণা যোগাচ্ছে গ্রুপপর্বে ভারতের সঙ্গে ভালো খেলে ড্র করার বিষয়টি।
ফাইনালকে সামনে রেখে বাংলাদেশ দলের কোচ গোলাম রাব্বানী ছোটন বলেন, ‘আমাদের প্রাথমিক লক্ষ্য ছিল সেমিফাইনাল খেলা। সেটা ভালোভাবেই পূরণ করে ফাইনালে এসেছি। আমরা কোনো চাপ নিচ্ছি না। আশা করছি আমাদের মেয়েরা তাদের সেরাটুকু দিয়ে চেষ্টা করেব। আমাদের লক্ষ্য অবশ্যই ফাইনালে জেতা। তবে ভুলে গেলে চলবে না যে ভারত বেশ শক্তিশালী দল। এ কথা আমি আগেও বলেছি। তবে ফাইনালে যেহেতু উঠেছি, সেহেতু স্বপ্ন কিন্তু কোনোভাবেই ছোট নয়।’
এদিকে ভারতের কোচ সাজিদ ইউসুফ দার বাংলাদেশকে সমীহ করলেও নিজেদের ফেভারিট দাবি করেছেন। তিনি বলেন, ‘টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ বেশ ভালো করছে। তাদেরকে হালকাভাবে নেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। তারা ভালো ফুটবল খেলেই ফাইনালে এসেছে। তাদের দলে ভালো কিছু খেলোয়াড়ও রয়েছে। বিশেষ করে তাদের ৯ ও ১০ নম্বর জার্সিধারী খেলোয়াড় (স্বপ্না ও সাবিনা)। তবে আগামীকালকের ম্যাচে আমরাই ফেভারিট। গ্রুপপর্বে ড্র হওয়ার ম্যাচটি নিয়ে এখন আর ভাবছি না। ওই ম্যাচটা হারলেও আমাদের সেমিফাইনালে যেতে সমস্যা হতো না। এখন আমরা ফাইনালে। ফাইনালের পরিকল্পনা ফাইনালের মতোই হবে। তবে আমরা গ্রুপপর্বের ম্যাচের পুনরাবৃত্তি হতে দেব না। আমরা চ্যাম্পিয়ন হতে চাই।’
ভারতের বিপক্ষে গ্রুপপর্বের ম্যাচে অসাধারণ খেলেছিলেন বাংলাদেশ দলের গোলরক্ষক সাবিনা আক্তার। মূলত তার অসাধারণ কিছু সেভের কারণেই বাংলাদেশ গোলশূন্য ড্র করতে পেরেছিল। ফাইনালকে সামনে রেখে সাবিনা আক্তারও আত্মবিশ্বাসী। দুটো ট্রফির মধ্যে বড় ট্রফিটা নিয়েই তিনি বাড়ি ফিরতে চান, ‘ভারত অবশ্যই শক্তিশালী দল। তাদেরকে আমরা হালকাভাবে নিচ্ছি না। নেওয়ার সুযোগও নেই। এটা ফাইনাল এবং আমরা আরো সিরিয়াসলি খেলব। ভালো খেলে ভালো ফল নিয়ে মাঠ ছাড়তে। রানার্সআপ হলেও আমরা একটা ট্রফি পাব। কিন্তু আমরা বড় ট্রফিটা নিয়েই দেশে ফিরতে চাই।’
উল্লেখ্য, সাফে বাংলাদেশ দলকে পৃষ্ঠপোষকতা করেছে ক্রীড়াবান্ধব প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 81 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ