আজ হরতাল কঠোর নিরাপত্তা দেশজুড়ে

Print

---

ভোরের বাণী প্রতিবেদক।। মানবতাবিরোধী অপরাধী ও বদর নেতা মতিউর রহমান নিজামীর ফাঁসির রায় কার্যকর হওয়ার পর জামায়াতে ইসলামীর ডাকা হরতালকে ঘিরে সতর্ক অবস্থানে আইন প্রয়োগকারী সংস্থা। নাশকতা ঠেকাতে রাজধানীসহ সারা দেশে সর্বোচ্চ নজিরবিহীন সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। সতর্কতার অংশ হিসেবে গত রাতেই মাঠে নেমেছেন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)-এর সদস্যরা। প্রস্তুত রাখা হয়েছে র‌্যাবের হেলিকপ্টার। রাজধানীতে মাঠে থাকবে পুলিশের বিশেষায়িত যান আর্মড পারসোনাল ক্যারিয়ার (এপিসি)। জামায়াত অধ্যুষিত ১৯ জেলার দিকে থাকবে বিশেষ নজর। নিজামীর গায়েবানা জানাজাকে কেন্দ্র করে গতকাল চট্টগ্রাম ও রাজশাহীতে জামায়াত নিজেদের অবস্থান জানান দেওয়ার পর থেকে আরও বেশি সতর্ক আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। বিজিবির মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আজিজ আহমেদ জানান, স্পর্শকাতর এলাকাগুলোর দিকে বিশেষ নজর দেওয়া হচ্ছে। নাশকতা দমনে বিজিবির সদস্যরা মাঠে থাকবে। জনগণের শান্তি বিনষ্টকারীদের কোনোভাবেই প্রশ্রয় দেওয়া হবে না। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, সারা দেশে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। পাশাপাশি গুরুত্ব বিবেচনা করেও অনেক জায়গায় বিশেষ নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা থাকছে। বাড়ানো হয়েছে গোয়েন্দা তত্পরতাও। যে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা মোকাবিলায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে।

গোয়েন্দা সূত্র বলছে, সারা দেশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা বিশেষ নজরদারির মধ্যে থাকবে। সাদা পোশাকে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সদস্যরা দেশের বিভিন্ন এলাকার বিভিন্ন পয়েন্টে অবস্থান নেবেন। মহাসড়কের পরিবহনগুলোর দিকেও থাকবে বিশেষ নজরদারি। মহাসড়কে থাকবে বিশেষ টহল। পাবনা, যশোর, সাতক্ষীরা, রংপুর, দিনাজপুর, গাইবান্ধা, জয়পুরহাট, ঠাকুরগাঁও, রাজশাহী, পঞ্চগড়, কক্সবাজার, চট্টগ্রাম, সিলেট, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, সুনামগঞ্জ, চট্টগ্রামসহ জামায়াত-শিবিরের প্রভাব থাকা জেলাগুলোয় যৌথ বাহিনীর বিশেষ অভিযান চলছে। ওইসব জেলায় মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ, র‌্যাব ও বিজিবি। রাস্তার মোড়ে বাড়তি চেকপোস্ট বসিয়ে করা হচ্ছে তল্লাশি। নাশকতার চেষ্টাকারীদের মোকাবিলায় কঠোর হওয়ার জন্য পুলিশ সদর দফতর থেকে দেওয়া হয়েছে বিশেষ নির্দেশনা। র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান বলেন, পরিস্থিতি স্বাভাবিক এবং শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখতে র‌্যাবের প্রতিটি সদস্য প্রস্তুত। যে কোনো মূল্যে নাশকতা প্রতিরোধে বিশেষ প্রস্তুতি রাখার জন্য র‌্যাবের সব কটি ব্যাটালিয়নকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। সাদা পোশাকেও র‌্যাব সদস্যরা গোয়েন্দা কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছেন। ঢাকা মহানগর পুলিশের উপকমিশনার মারুফ আহমেদ সরদার বলেন, রাজধানীর নিরাপত্তায় সর্বোচ্চ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনার আশপাশে থাকবে বিশেষ টহল। পোশাকে ও সাদা পোশাকে মাঠে থাকবে পুলিশ। নাশকতার চেষ্টা করলেই তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 25 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ