ইলেকট্রিক ওভেন ও মাইক্রোওয়েভ ওভেন এর মধ্যে পার্থক্য ও ব্যবহার

Print

ইলেকট্রিক ওভেন ও মাইক্রোওয়েভ ওভেন এর মধ্যে পার্থক্য ও ব্যবহার

  আমাদের অনেক নতুন রাঁধুনির অনুরোধ ছিলো, মাইক্রোওয়েভ ওভেন আর ইলেকট্রিক ওভেনের পার্থক্য নিয়ে কিছু লেখার জন্যে। বিশেষ করে যারা নতুন সংসার জীবন শুরু করেছেন তারা। সবার-ই একটি কমন প্রশ্ন ছিলো– কোন ওভেন কিনবে, মাইক্রো নাকি ইলেকট্রিক? দু’টোর মধ্যে যেহেতু অনেক পার্থক্য আছে, তাই অনেকেই কনফিউজড থাকেন। তো, চলুন- এই দু’টোর মধ্যে কি কি পার্থক্য আছে জেনে নেয়া যাকঃ

ডিফরেন্ট হিটিং প্রিনসিপলসঃ

মাইক্রোওয়েভ ওভেন তাপমাত্রা উৎপন্ন করে মাইক্রো মেটেরিয়াল মলিকিউলের ভাইব্রেটিং/কম্পন বা মাইক্রো ওয়েভের সাহায্যে। এটা সুপার হাই স্পীডে ওয়াটার মলিকিউল তৈরি করে এবং পরস্পরকে স্ট্রাইক করে তাপমাত্রা উৎপন্ন করে। তাই খাবার গরম হয় এই পদ্ধতিতেই। মাইক্রোওয়েভ ওভেনে খাবার ভেতর থেকে গরম হয়ে বাইরের দিকে আসে।

অন্যদিকে, ইলেকট্রিক ওভেন তাপমাত্রা উৎপন্ন করে ইলেকট্রিক ওয়্যার/রড-এর মাধ্যমে যা কারেন্ট/পাওয়ার থেকে আসে। তাই এই তাপমাত্রা খাবারের বাইরের দিক থেকে ভেতরে প্রবেশ করে খাবারকে কুক হতে সাহায্য করে।

ডিফরেন্ট মুড মেড বাই ইলেকট্রিক ওভেন এন্ড মাইক্রোওয়েভ ওভেনঃ

মাইক্রোওয়েভ ওভেনে “মাইক্রো ওয়েভের” মাধ্যমে খাবার ভেতর দিক থেকে বাইরের দিকে গরম হয়। আর ইলেকট্রিক ওভেনে “ইলেকট্রিক ওয়্যারের” মাধ্যমে খাবার বাইরে থেকে ভেতরের দিকে গরম/কুক হয়।

ডিফরেন্ট ইউসেজঃ

সাধারণত, মাইক্রোওয়েভ ওভেন একটি রি-হিটিং টুল। এটা রান্নার জন্যে খুব একটা ভালো টুল নয়। যদিও এখন কনভেকশন অপশন সহ মাইক্রোওয়েভ ওভেন কিনতে পাওয়া যায়। তবে, সেটার ব্যবহার ভিন্ন। মাইক্রোওয়েভ ওভেনে যেহেতু খুব তাড়াতাড়ি খাবার গরম হয়, তাই খাবারের ময়েশ্চার এবং ফুড ভেল্যু দু’টোই নষ্ট হয়। বার-বি-কিউ বা কনভেকশন অপশনেও নষ্ট হয়।

অন্যদিকে, ইলেকট্রিক ওভেনে রান্না করা খাবারের স্বাদ ও ফুড ভেল্যু কোনোটাও নষ্ট হয়না। ইলেকট্রিক ওভেনে রান্না করা খাবার বাইরের দিকে ক্রিসপি এবং ভেতরের দিকে সফট থাকে যা সবাই পছন্দ করে!

** দেখা যাচ্ছে যে, মাইক্রোওয়েভ ওভেন খাবারকে দ্রুত রি-হিট বা গরম করে আর ইলেকট্রিক ওভেনে মাছ বা মাংস রোস্ট কিংবা বেকিং করা হয়ে থাকে।

** মাইক্রোওয়েভ ওভেনে ম্যাটাল কোনো ডিশে খাবার গরম করা যায়না।কিন্তু ইলেকট্রিক ওভেনে করা যায়।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 254 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ