একটি মানুষও যেন অবহেলিত না থাকে

Print

সমাজের একটি মানুষও যেন অবহেলিত না থাকে, সেদিকে লক্ষ রেখে বিভিন্ন দেশকে নীতি ও কর্মসূচি গ্রহণ করার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
ভুটান সফরের দ্বিতীয় দিনের শুরুতে আজ বুধবার ‘ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স অন অটিজম অ্যান্ড নিউরোডেভেলপমেন্ট ডিজঅর্ডার্স’ কর্মসূচিতে যোগ দিয়ে শেখ হাসিনা এ আহ্বান জানান।

ভুটানের প্রধানমন্ত্রী শেরিং তোবগে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার আঞ্চলিক পরিচালক পুনম ক্ষেত্রপাল সিং এ সম্মেলনে বক্তব্য দেন। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর কন্যা ও বাংলাদেশের জাতীয় অটিজমবিষয়ক উপদেষ্টা কমিটির চেয়ারপারসন সায়মা ওয়াজেদ পুতুলও ছিলেন।
পরে ভুটানের রাজা জিগমে খেসার ন্যামগেল ওয়াংচুককে নিয়ে থিম্পুতে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসের নিজস্ব ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। এ সময় তাঁদের উপস্থিতিতে ঢাকার বারিধারায় ভুটান দূতাবাস স্থাপনের জন্য জমি হস্তান্তর-সংক্রান্ত চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।
এর আগে গতকাল মঙ্গলবার রাতে বাংলাদেশ ও ভুটানের মধ্যে তিনটি সমঝোতা স্মারক ও দুটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। রয়্যাল ব্যাংকুয়েট হলে ভুটানের প্রধানমন্ত্রী শেরিং তোবগের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দ্বিপক্ষীয় বৈঠকের পরে তাঁদের উপস্থিতিতে এই চুক্তি ও স্মারকগুলো স্বাক্ষরিত হয়।
বাংলাদেশের পক্ষে সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব সুরাইয়া বেগম, পররাষ্ট্র সচিব মো. শহীদুল হক এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দক্ষিণ এশিয়াবিষয়ক মহাপরিচালক (ডিজি) মনোয়ার হোসেন। ভুটান সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের শীর্ষ কর্মকর্তারা চুক্তি ও স্মারকে সই করেন।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 183 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
error: ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি