এটা ছিল প্রধানমন্ত্রী হত্যা করার ২০তম চেষ্টা : ওবায়দুল কাদের

Print

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মতো একটি মহল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকেও সরিয়ে দিতে চাচ্ছে বলে দাবি করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।
শুক্রবার (৬ জানুয়ারি) ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে স্বেচ্ছাসেবক লীগের যৌথসভা শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আমাদের যারা প্রতিপক্ষ, তারা এতদিনে বুঝতে পেরেছে নির্বাচনের মাধ্যমে শেখ হাসিনাকে পরাজিত করা, হারিয়ে দেয়া সম্ভব নয়। বঙ্গবন্ধুকে কেন হত্যা করা হয়েছে? তখন ওরা বুঝতে পেরেছিল নির্বাচনের ভোটে তাকে হারানো যাবে না।ঠিক সেই মুহূর্তে ষড়যন্ত্র করে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করা হয়েছে।
তিনি বলেন, আজকে আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনার যে জনপ্রিয়তা, তার দূরদর্শী নেতৃত্বের কারণে যতই তিনি জনপ্রিয় হয়ে উঠছেন, ততই তার শত্রু বাড়ছে, ততই জীবন ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠছে। তিনি প্রচণ্ড ঝুঁকির মুখে আজ দেশ চালাচ্ছেন। এই যে বিমানে ঘটনা এটা শেখ হাসিনাকে হত্যা করার ২০তম চেষ্টা। একটা মহল বঙ্গবন্ধুর মত শেখ হাসিনাকেও সরিয়ে দিতে চেষ্টা করছে।
এসময় বিএনপির সমালোচনা করে কাদের বলেন, তারা আজকে মুখে গণতন্ত্রের কথা বললেও কাজ হচ্ছে ষড়যন্ত্র। গণতন্ত্র তারা চায় না, তারা চায় ষড়যন্ত্র। তারা ষড়যন্ত্রমূলকভাবে শেখ হাসিনাকে ক্ষমতা থেকে সরাতে চায়।
দেশে উগ্রবাদী গোষ্ঠীর বিপদ এখনো কাটেনি জানিয়ে সরকারের সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন,আমাদের নেতাকর্মীদের সতর্ক থাকতে হবে। সাম্প্রদায়িক উগ্রবাদী গোষ্ঠীর বিপদ এখনো কাটেনি।আশকোনায় জঙ্গি আস্তানায় সাহসী অভিযান সফলভাবে শেষ হয়েছে। এ রকম আরো কত আশকোনা আছে এটা এই মুহূর্তে বলা যায় না। কারণ,সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ এখন একটা “গ্লোবাল ফিনোমেনন’।
কাদের বলেন,কাজেই তারা কখন কোথায় হানা দিবে, তাদের ডালপালা আজকে বিস্তারিত হয়ে আছে। আমাদের সতর্ক থাকতে হবে, সাবধান থাকতে হবে। এই অশুভ শক্তিকে প্রতিহত করতে হবে, পরাজিত করতে হবে।
আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, শেখ হাসিনার উন্নয়ন সারা বিশ্বের বিস্ময়। আমাদের পার্টির চেয়ে তার উচ্চতা অনেক বেশি।তিনি আমাদের উন্নয়নের রোল মডেল।
এ সময় যেসব নেতাকর্মী অপকর্ম করে তারা সংশোধন না হলে দল থেকে বহিষ্কার করার হুঁশিয়ারি দিয়ে কাদের বলেন, আমাদের যরা অপকর্ম করে তাদের সংশোধন করতে হবে। যারা সংশোধন হবে না তাদের দল থেকে বের করে দিতে হবে। প্রথমে সংশোধন করবো, পরে যারা সংশোধন হবে না তাদের দল থেকে বহিষ্কার করা হবে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 148 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ