এবার মহিলা কলেজে দীর্ঘক্ষণ চললো অশ্লীল ও আপত্তিকর ভিডিও

Print

প্রতীকী নারায়ণগঞ্জ সরকারি মহিলা কলেজের শ্রেণিকক্ষে মেয়ে শিক্ষার্থীদের সামনে অশ্লীল ভিডিও প্রদর্শনের অভিযোগ উঠেছে। প্রায় ৪০ মিনিটি ধরে বড় পর্দায় চলা ওই ভিডিও দেখে রীতিমতো লজ্জায় মুখ ঢাকেন শিক্ষার্থীরা। ওই ঘটনায় শনিবার একটি তদন্ত কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কলেজ কর্তৃপক্ষ। এদিকে ঘটনা প্রকাশ পাওয়ার পর অভিভাবক মহলে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টায় ব্যবসা শিক্ষা বিভাগে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিষয়ক প্র্যাকটিক্যাল ক্লাস শুরুর আগে ক্লাসরুমে বড় পর্দায় প্রজেক্টর চালু করেন আইসিটি বিভাগের ডিপার্টমেন্ট সহকারী হাবিবুর রহমান রাজু। তিনি ক্লাসরুম থেকে বের হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে পর্দায় ভেসে উঠে হিন্দি একটি ছবি, যেখানে অশ্লীলতা ও আপত্তিকর দৃশ্য ভরপুর। ওই ভিডিওটিও ১৮ বছরের বেশিদের জন্য প্রযোজ্য। সেটাও শর্তসাপেক্ষ। প্রদর্শিত ছবিতে এক নারী কোনো এক মুহূর্তে প্রকাশ্যে ধূমপান করছেন। আরেক চিত্রে দেখা যায়, খুবই ঘনিষ্ঠ অবস্থায় নরনারীর অবস্থান। এসব দেখে মূলত কলেজের অনেক শিক্ষার্থী শ্রেণিকক্ষেই মুখে হাত দিয়ে চোখ ঢেকে বসে থাকেন। ওই ক্লাসরুমে থাকা একাধিক শিক্ষার্থী জানায়, ৩টা থেকে ৩টা ৪০ মিনিট পর্যন্ত ছবিটি প্রদর্শিত হয়। এ সময় অনেক শিক্ষার্থীই লজ্জায় মাথা নিচু করে রাখেন। ক্লাসে থাকা এক শিক্ষার্থী নাম প্রকাশ না করার অনুরোধ করে বলেন, আইসিটি ক্লাস শুরু হওয়ার আগে আমাদের হাবিবুর রহমান রাজু (অফিস সহকারী) এসে প্রজেক্টর স্থাপন করার পর এরকম একটি ছবি ছেড়ে চলে যান। আমাদের শিক্ষক আবুল বাশার (প্রভাষক, দর্শন বিভাগ) পরে এসে ছবি বন্ধ করে দিয়ে গেলে পরে ক্লাস শুরু হয়। ওই ছাত্রী আরো বলেন, আমরা অনেকেই লজ্জায় কিছু বলতে পারছিলাম না। আবার কলেজ থেকে যে বের হয়ে যাবো তাও আমাদের দিচ্ছিল না। তাই অনেকটা বাধ্য হয়েই আমাদের বসে থাকতে হয় সেখানে। ক্লাস শেষ হওয়ার পর কথা প্রসঙ্গে একাধিক ছাত্রী জানান, প্রায়শ আমাদের ক্লাসে এমন ঘটনা ঘটে। কিন্তু আমরা বলতে সাহস পাই না, যদি আমাদের প্রাকটিক্যাল পরীক্ষায় নাম্বার না দেয়। আজও এরকম একটি ঘটনা ঘটেছে। ঘটনা সম্পর্কে জানতে চাইলে কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল ওহাব চৌধুরী জানান, এটি আসলেই গুরুতর অভিযোগ। কিন্তু আমাকে কোনো ছাত্রী অভিযোগ করেনি। ভুলক্রমেও অসাবধানতাবশত এরকম কোনো ভিডিও চলে তাও অপরাধের শামিল। আমি এ ব্যাপারে খোঁজ নিচ্ছি। শনিবারের মধ্যে তদন্ত কমিটি করবো। কমিটির রিপোর্ট অনুযায়ী কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। বাংলাদেশ ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ টিচার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বেলটার) নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপতি কবির চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশ সরকারের ডিজিটাল শিক্ষা প্রযুক্তিতে যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে সেখানে তথ্য প্রযুক্তি কেন্দ্রিক আইসিটি শিক্ষা বিভাগ একটি প্রশংসনীয় উদ্যোগ। কিন্তু ক্লাসে অশ্লীলতা প্রদর্শন ন্যক্কারজনক কাজ। যদি সেটা দীর্ঘক্ষণ হয়ে থাকে তবে এর পিছনে অন্য কোনো উদ্দেশ্য ছিল কিনা তা খতিয়ে দেখা দরকার।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 241 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ