এবার সাগরে রণতরী ধ্বংস করতে পারবে পাকিস্তান

Print

জানুয়ারির পর মার্চ মাসে ফের ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষা করল পাকিস্তান। সমুদ্রে থাকা শত্রু শিবিরে আঘাত হানতে এই ক্ষেপণাস্ত্র সক্ষম হবে বলে দাবি করেছে পাকিস্তান সেনাবাহিনী। যদিও পাকিস্তানের নয়া এই ক্ষেপণাস্ত্রের নামকরণ হয়নি।
বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের নৌবাহিনী ভূমি থেকে সমুদ্রে আঘাতকারী নামহীন এই ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষা চালায়। আধুনিক ইলেক্ট্রনিক প্রযুক্তির এই ক্ষেপণাস্ত্র লক্ষ্যবস্তুকে নিখুঁতভাবে আঘাত করবে বলে দাবি ইসলামাবাদের। এই নতুন ক্ষেপণাস্ত্রের ফলে ওই দেশ সামরিক বলে অনেক বলীয়ান হয়েছে বলে দাবি করেছেন পাকিস্তান নৌবাহিনীর এক মুখপাত্র। পাকিস্তানের নৌবাহিনীর প্রধান অ্যাডমিরাল খান হিশাম বিন সিদ্দিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার সময় উপস্থিত ছিলেন।

চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে আবাবিল এবং বাবর-৩ নামের দু’টি ক্ষেপণাস্ত্রের সফল উৎক্ষেপণ করেছিল পাকিস্তান। মাস দুয়েক পর এই আধুনিক ক্ষেপণাস্ত্রের কেন কোনো নামকরণ করা হয়নি? এই প্রশ্নের উত্তর পাওয়া যায়নি।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 196 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ