এরপরও কোমল পানীয় খাবেন?

Print

আপনি কি কোমল পানীয়’র ফ্যান? কিন্তু কোলার ভেতর কি আছে, এই তথ্যগুলো জানার পর হয়ত আপনার মনে পরিবর্তন আসতে পারে। একজন মানুষের প্রতিদিন গড়ে ৪০ গ্রাম চিনি প্রয়োজন। অথচ এক গ্লাস বা ২৫০ মি.লি. কোলা পান করলেই কিন্তু শরীরে ৪০ গ্রামের চেয়েও বেশি চিনি ঢুকে পড়ে, যা ঠিক নয়। ডয়চে ভেলে অবলম্বণে জানিয়ে দিচ্ছি আরো গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি তথ্য।
লাইট কোলাতেও সমস্যা

এক গবেষণায় জানা গেছে, কোলা লাইট-এ যে সুইটনার ব্যবহার করা হয় সেটা রক্তে চিনির পরিমাণ বাড়িয়ে দিতে পারে, যা ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য মারাত্মক হতে পারে। সুস্থ মানুষের ক্ষেত্রেও রক্তে চিনির পরিমাণ বেড়ে যাওয়াটা ঠিক নয়, কারণ সুইটনার রক্তে থাকা উপকারী ব্যাক্টিরিয়া মেরে ফেলতে পারে।
পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া
অনেকে মনে করেন চিনির বিকল্প হিসেবে সুইটনার ভালো। কিন্তু কোলায় থাকা সুইটনারে থাকে অ্যাসপারটেম, যা মাথাব্যথার কারণ হতে পারে। এছাড়া চোখে দেখতে সমস্যা হওয়া, হতাশা, মাথা ঘোরা, স্মৃতিশক্তি হারিয়ে যাওয়া, ওজনগত সমস্যা, মাংসপেশীতে ব্যথা ইত্যাদি হতে পারে।
দাঁতের ক্ষতি
কোলায় শুধু যে চিনি থাকে তা নয়। এতে আরও আছে ফসফরিক এসিড, যা দাঁতের এনামেলের ক্ষতি করে।
হাড়
কোলা পান করলে দাঁত ছাড়াও হাড়ের ক্ষতি হতে পারে। হার্ভার্ড স্কুল অফ পাবলিক হেল্থ-এর এক গবেষণায় দেখা গেছে, নারীদের মধ্যে যারা খেলাধুলা করে ও কোলা পান করে তাদের আহত হওয়ার সম্ভাবনা, যারা কোলা পান করে না, তাদের চেয়ে তিনগুণ বেশি।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 121 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ