ঐতিহ্যবাহী শেরপুরে মাছের মেলায় মানুষের ঢল

Print

গ্রামবাসী ও প্রসাশনের হস্তক্ষেপে জোয়া ও পুতুল নাচ বন্ধ

এস এ শাওনঃ নবীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজার জেলার শেরপুর কুশিয়ারা নদীর পাড়ে প্রতিবছরের ন্যায় তিন দিন ব্যাপি মাছের মেলা অনুষ্টিত হয়। প্রথম দিন জোয়া ও পুতুল নাচের আসর বসলেও প্রকাশিত সংবাদের ভিত্তিতে প্রসাশনের হস্তক্ষেপে ২ য় দিন জোয়া ও পুতুল নাচ বন্ধ করে দেওয়া হয়। এতে করে প্রসাশনের নির্বাক দায়িত্ব পালনের জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন গ্রামবাসী। মেলা ঘুরে দেখা যায় পুতুল নাচের শখানেক ঘর পুলিশের হস্তক্ষেপে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।এতে করে পুতুল নাচ ব্যবসায়ীরা ক্ষতিগ্রস্ত হলেও যুব সমাজ এর হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে। পুতুল নাচ নাম করে অশ্নীল নৃত্য পরিচালিত হতো এতে করে যুব সমাজ ধ্বংষের দিকে ধাবিত হতো। সব শ্রেনীর মানুষরাই পুতুল নাচ বন্ধ হওয়ায় স্বস্তির নিঃশ্বাস নিচ্ছেন। শেরপুরের এই ঐতিহাসিক মাছের মেলাটি প্রায় ২০০ বছর ধরে চলে আসছে কুশিয়ারা নদীর পাশে পৌষ সংক্রান্ত হিন্দুদের শাস্ত্র অনুযায়ী মেলাটি অনুষ্টিত হয় ।এতে  বিভিন্ন জেলা উপজেলা থেকে মানুষ এসে ভীড় জমায়। মাছের মেলায় অনেক বড় বড় মাছ নিয়ে এসেছেন হবিগন্জ,মৌলভীবাজার,গোলাবাজার,সুনামগঞ্জ, কমিল্লা, সিলেট শেরপুরসহ বিভিন্ন জেলার মাছ বিক্রিতারা। হবিগন্জের এক মাছ বিক্রিতার কাছ থেকে জানা যায় একটি বোয়াল তিনি ৩০ / ৫০ হাজার দামে  বিক্রি করেন।এছাড়াও সব নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিষ মেলায় পাওয়া যাচ্ছে- যেমন কাপড়,খেলনা, কাঠমাল,কসমেটিকস,লোহার তৈরী দা,কোদাল,এবং খাবারের হোটেল এবং বিভিন্ন বাহারী দোকান। ঐতিহ্যবাহী এই মেলাটি বিলুপ্ত যেন না হয় সেই দিকে লক্ষ রাখার আহবান জানিয়েছেন এলাকাবাসীর।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 144 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ