কর্নফুলীতে নির্বাচনী আইন শৃঙ্খলা সমন্বয় সভায় নির্বাচন কমিশনার শাহাদাত হোসেন

Print

কর্নফুলীতে নির্বাচনী আইন শৃঙ্খলা সমন্বয় সভায় নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শাহাদাত হোসেন চৌধুরী (অবঃ)
“বর্তমান কমিশন অঙ্গীকারবদ্ধ একটি অবাধ ও সুষ্ঠ নিরপেক্ষ নির্বাচন উপহার দিতে”
“কাউকে ছাড় দেওয়া হবেনা,কমিশন কারো পক্ষে কাজ করবেনা। জনগণের ভোট প্রয়োগ নিশ্চিত করবে”।
জে,জাহেদ নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
“বর্তমান কমিশন (ইসি) অঙ্গীকারবদ্ধ একটি অবাধ ও সুষ্ঠ নিরপেক্ষ নির্বাচন কর্নফুলীবাসীকে উপহার দিতে। “প্রশাসন নয় জনগনের মনোনিত প্রার্থীদের স্বদিচ্ছায় পারে একটি সুষ্ঠ নির্বাচন সমপন্ন করতে”।
এ ছাড়া তিনি জানান, গত ১৫ই ফ্রেবুয়ারী এ নির্বাচন কমিশন দায়িত্ব গ্রহন করে অত্যন্ত সুনামের সাথে প্রতিটি নির্বাচন সমপন্ন করেছে কুমিল্লা সিটি কর্রপোরেশন সহ গত ইউপি নির্বাচন গুলোতে।
আশা করি এ যাত্রা অব্যাহত থাকবে। “কাউকে ছাড় দেওয়া হবেনা,কমিশন কারো পক্ষে কাজ করবেনা। জনগণের ভোট প্রয়োগ নিশ্চিত করবে”।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে কথা গুলো বলেন বর্তমান নির্বাচন কমিশন এর কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শাহাদাত হোসেন চৌধুরী (অব)।
কর্ণফুলী উপজেলা পরিষদ সাধারণ- ১৭ উপলক্ষে চট্রগ্রাম জেলা প্রশাসনের আয়োজনে কর্নফুলীতে আইন শৃঙ্খলা সংক্রান্ত সমন্বয় সভার আয়োজন করা হয়েছে।
আজ ১২ই আগষ্ট শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার সময় কর্নফুলী উপজেলা পরিষদের অস্থায়ী ভবন জুলধা ইউনিয়ন পরিষদে এ সভা অনুষ্টিত হয়।
এ আইন শৃঙ্খলা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শাহাদাত হোসেন চৌধুরী (অব)।
বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, মোঃ মোখলেসুর রহমান অতিরিক্ত সচিব (ইসি), হারুন অর রশিদ হাযারী উপ পুলিশ কমিশনার বন্দর চট্রগ্রাম, এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন নুরে আলম মিনা পুলিশ সুপার চট্রগ্রাম।
প্রশাসনের পক্ষ থেকে বক্তারা জানান,প্রতিটি কেন্দ্রে পর্যাপ্ত বাহিনী মোতায়েন করা হবে। ঝুকিপূর্ন কেন্দ্রে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, র্যাব ও পুলিশের পাশাপাশি বিজিবির ১০টি পেট্রোল টিম,সাদা পোশাকে বিভিন্ন বাহিনী, ৪২টি কেন্দ্রে পুলিশের ডিসি,ওসি,ইন্সপেক্টর,সাব ইন্সপেক্টর,এএসআইসহ পাঁচ শতাধিক পুলিশ সদস্য এবং ৫৮৪ জন আনসার বাহিনী নিয়োজিত থাকবে ভোট কেন্দ্রে।
এতে সভাপতিত্ব করেন চট্রগ্রাম জেলা প্রশাসনের মাননীয় প্রশাসক জিল্লুর রহমান চৌধুরী।
জেলা প্রশাসকের পরিচালনা সভায় এতে বক্তব্য রাখেন, নির্বাচন কমিশনের অতিরিক্ত সচিব মোঃ মোখলেসুর রহমান, উপ পুলিশ কমিশনার হারুন অর রশিদ হাযারী, পুলিশ সুপার নুরে আলম মিনা,বিজিবি মেজর মনজুর আহমেদ, র্যাব ৭ এর কমান্ডিং অফিসার আশিকুর রহমান, আনসার ভিডিপির জেলা কর্মকর্তা আশিষ রহমান সহ কর্নফুলী রিটার্নিং ও প্রিসাইডিং অফিসার বৃন্দ।
এক পর্যায়ে প্রার্থীরা এতে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য প্রদান করেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক ও নৌকা সমর্থিত প্রার্থী আলহাজ্ব ফারুক চৌধুরী, বিএনপি মনোনিত ধানের শীর্ষ প্রার্থী এড এসএম ফোরকান, ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী দিদারুল ইসলাম চৌধুরী (নৌকা), আলহাজ্ব মোঃ ওসমান , মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী উম্মে মিরজান শামীমা (ধানের শীষ), বানাজা বেগম নিশি (নৌকা), এছাড়াও জাতীয়পার্টি, ইসলামী ঐক্য ফ্রন্ট এর চেয়ারম্যান প্রার্থী সহ মোট ১০ জন প্রার্থী তাদের নির্বাচনী স্বার্থে নানা মন্তব্য প্রদান করে।
এতে প্রার্থীরা নির্বাচন চলাকালীন সময়ে কর্নফুলী উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠ নিরপেক্ষ করতে মোট ৪২ টি কেন্দ্রে সিসিটিভি বসানো,প্রতিটি কেন্দ্রে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোতায়েন,সার্বক্ষণিক মিডিয়া সহ বিভিন্ন আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর উপস্থিতির কথা তুলে ধরেন।
সবশেষে সভাপতি জেলা প্রশাসক জিল্লুর রহমান চৌধুরী কর্নফুলী উপজেলার সকল নাগরিকের সার্বিক সহযোগিতা চান। যাতে একটি স্বচ্চ সুষ্ঠ নির্বাচন উপহার দিতে পারেন কর্নফুলী বাসীকে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 159 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ