কাফকো থেকে ৩০ হাজার টন সার নেবে সরকার

Print

কাফকো থেকে ৩০ হাজার টন সার নেবে সরকার

দেশের কৃষিখাতে চাহিদা মেটাতে ৩০ হাজার টন ব্যাগড গ্র্যানুলার ইউরিয়া সার নেবে সরকার। এ জন্য মোট  ব্যয় হবে ৭০ লাখ ৭৬ হাজার ২৫০ ডলার সমপরিমান ৫৫ কোটি ৯০ হাজার টাকা।

 

২০১৬-২০১৭ অর্থবছরে কর্ণফুলী ফার্টিলাইজার কোম্পানি লিমিটেডের (কাফকো) কাছ থেকে চুক্তিবদ্ধ তিন লাখ টনের মধ্যে দ্বিতীয় লটে এই ৩০ হাজার টন ইউরিয়া সার নেওয়া হবে বলে শিল্প মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে।

 

সূত্র জানায়, কৃষি মন্ত্রণালয় ২০১৬-২০১৭ অর্থবছরে দেশে ইউরিয়া সারের মোট চাহিদা নির্ধারন করেছে ২৫ লাখ টন এবং সমাপনী মজুদ ৮ লাখ টন। কৃষি মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ২০১৬-২০১৭ অর্থবছরে ইউরিয়া সার সংগ্রহ পরিকল্পনা শিল্প মন্ত্রণালয় কর্তৃক অনুমোদিত হয়। এ পরিকল্পনায় কাফকো থেকে  তিন লাখ টন ইউরিয়া সার নেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। কাফকোর সঙ্গে চুক্তির ধারাবাহিকতায় ২০১৬-২০১৭ অর্থবছরে প্রথম লটে ১০ হাজার টন সার নেওয়া সম্পন্ন হয়েছে।

 

সূত্র জানায়, কাফকো থেকে ইউরিয়া সার নেওয়ার ক্ষেত্রে ফ্রেইটের প্রয়োজন হয় না। এ ক্ষেত্রে সরকারের ফ্রেইট খাতে অর্থ সাশ্রয় হয়। কাফকোর সঙ্গে বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাষ্ট্রিজ লিমিটেডের (বিসিআইসি) চুক্তির আওতায় ২০১৬-২০১৭ অর্থবছরের দ্বিতীয় লটে ৩০ হাজার টন ব্যাগড গ্র্যানুলার ইউরিয়া সার ক্রয়ের জন্য বিসিআইসি প্রস্তাব করেছে।

 

সূত্র জানায়, আন্তর্জাতিক দরের ভিত্তিতে মূল্য নির্ধারণ ফর্মূলা অনুযায়ী কাফকোকে দ্বিতীয় লটের ইউরিয়া সারের দর প্রস্তাব করার জন্য চিঠি দেয় বিসিআইসি। এরপর কাফকো ৩০ হাজার টন সারের দর প্রস্তাব পাঠায়। চুক্তি অনুযায়ী প্রস্তাব পাঠানোর পূর্ববর্তী সপ্তাহে এফএমবি ইন্টান্যাশনাল প্রাইস গাইড, ফার্টিকন নাইট্রোজেন রিপোর্ট, দি মার্কেট এবং দি প্রোফারসি রিপোর্ট-এ প্রকাশিত এরাবিয়ান গালফ/মিডল ইস্ট-এর গড় দর বিবেচনায় সারের মূল্য নির্ধারণ করার বিধান রয়েছে। সে অনুযায়ী বিবেচ্য দ্বিতীয় লটের দরের ক্ষেত্রে সে নিয়ম অনুসরণ করা হয়েছে।

 

সূত্র জানায়, কাফকো প্রতি টন এফবিও বাল্ক ২৩০ দশমিক ৮৭৫ ডলার দর প্রস্তাব করেছে। প্রতি টনের ব্যাগিং চার্জ বাবদ পাঁচ ডলার যোগ হবে। সে হিসেবে এফওটি (কাফকো ব্যাগিং হাউজ) ভিত্তিতে প্রতি টন গ্র্যানুলার ইউরিয়ার দাম পড়বে ২৩৫.৮৭৫ ডলার। সে হিসেবে ৩০ হাজার টন সার ক্রয়ের আর্থিক সংশ্লিষ্টতা হবে ৭০ লাখ ৭৬ হাজার ২৫০ ডলার। যা বাংলাদেশি মূদ্রায় দাঁড়াবে ৫৫ কোটি ৯০ লাখ ২৩ হাজার টাকা।

 

বিসিআইসি টেন্ডার ইভ্যালুয়েশন কমিটির বৈঠকে কাফকো থেকে দ্বিতীয় লটে ৩০ হাজার টন ব্যাগড গ্র্যানুলার ইউরিয়া সার ক্রয়ের সুপারিশ করা হয়েছে। এরপর সেটি প্রস্তাব আকারে শিল্প মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হলে তা অনুমোদনের জন্য সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির পরবর্তী বৈঠকে উপস্থাপন করা হবে বলে সূত্র জানায়।

 

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 126 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ