কিংবদন্তী রাজনীতিবীদ বানিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহম্মেদ দাড়িয়েছেন অসহায় লিয়ার পাশে

Print

মো:ইয়ামিন হোসেন,ভোলা
ভোলায় ক্ষনস্থায়ী সুন্দর এ পৃথিবীতে যুগে যুগে অসংখ্য কবি,সাহিত্যক,দার্শনিক, লেখক,রাজনীতিক মানবতার জয়গান গেয়ে মানুষের মাঝে চিরস্মরনীয় হয়ে আছেন। তাদের সেসব আবেগ জাগানো লেখা ও কির্তী মানুষের মানবিকতাকেই জাগ্রত করেনি, সৃষ্টিশীল সত্যানুসন্ধানী মহৎ মানবিক মুল্যবোধ সম্পন্ন মানুষদের প্রেরনা ও যুগিয়েছে।
ভোলা-১ আসনের সংসদ সদস্য বানিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহম্মেদ এমপি। অসহায় মানুষের পাশে দাড়িয়ে বিভিন্ন সময়ে মানবিকতার বিরল দৃষ্টান্তরস্থাপন করেছেন কিংবদন্তী রাজনীতিবীদ।
দ্বীপজেলা ভোলার আলোচিত ঘটনা ভোলা পল্লী বিদুৎ সমিতি কর্তৃক ঘরের চালের উপর দিয়ে জোরপুর্বক নিয়ম বহির্ভুত বিদুৎ লাইনে বিদুৎস্পৃষ্ট হয়ে নিষ্টরতার শিকার হয় সদর উপজেলার দক্ষিন দিঘলদী বালিয়া গ্রামের দিনমজুর ফিরোজ মিয়ার ১২ বছরের কন্যা স্থানীয় নেয়ামতপুর হাইস্কুলের ষষ্ঠ শ্রেনীর ছাত্রী শামীমা আক্তার (লিয়া)।
বিদুৎস্পৃষ্ট হওয়ার পর লিয়াকে ঢাকা মেডিকেলের বার্নইউনিটে ভর্তি করা হলে তার বাম হাত ও দুই পায়ের দুটি করে আঙ্গুলগুলো কেটে ফেলায় পঙ্গুত্ব হয়ে যায়। নির্মম এ নিষ্ঠুর, ঘটনা ও পুনর্বাসনের জন্য কেউ এগিয়ে আসেনি।
ঢাকা মেডিকেলের বার্নইউনিট হতে লিয়া চিকিৎসা পরবর্তী ছারপত্র পাওয়ার পর লিয়া ও তার মা বাবা বাণিজ্যমন্ত্রীর বনানীর বাসভবনে সাক্ষাত করে ঘটনার বিস্তারিত বর্ননা দিলে মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় নির্মম এই নিষ্ঠুর ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করেন। পল্লী বিদুৎ সমিতির এহেন দায়িত্বহীনতার জন্য ও তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করেন। মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় নাতনীসম লিয়াকে তাহার পাশে নিয়ে বসান লিয়ার গায়ে হাত বুলিয়ে দিয়ে লিয়াকে আদর করে তিনি আবেগপুল্লাত হয়ে পড়েন।
মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় লিয়াকে একটি কৃত্তিম হাত পল্লী বিদুৎ সমিতি হতে এক লক্ষ টাকা ও উপস্থিত ভোলার সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন হতে এক লক্ষ টাকা সহ লিয়াকে একটি এফডিআর ও তার লেখাপড়ার খরচ বহন করার আশ্বাস প্রদান করেন।
তারই প্রেক্ষিতে আজ ১৫ সেপ্টেম্বর সকাল ১১টায় মাননীয় মন্ত্রী তার বনানীর বাসভবনে লিয়ার বাবা মো: ফিরোজ মিয়ার হাতে ভোলা ন্যাশনাল ব্যাংক শাখায় করা আট লক্ষ টাকার এফডিআর ডকুমেন্টস হস্তান্তর করেন। মাননীয় বানিজ্যমন্ত্রীর আট লক্ষ টাকার এফডিআর পেয়ে লিয়ার বাবা কেদেঁ কেদেঁ বলেন মেয়েটির ভবিষৎ নিয়ে উদ্বিগ্ন ছিলাম মাননীয় মন্ত্রীর পুনর্বাসনে তার নিকট চিরঋনী হয়ে হয়ে গেলাম।এছারা ও কৃত্তিম অঙ্গপ্রত্যঙ্গ প্রতিস্থাপকারী প্রতিষ্ঠান’এনডোলাইট বাংলাদেশ এর মাধ্যমে লন্ডন হতে লিয়ার জন্য উন্নত মানের একটি কৃত্তিম হাত ও সংযোজন করা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানায় লিয়ার বাবা।
ছবির ক্যাপসন: ০১ আজ ১৫ সেপ্টেম্বর সকাল ১১টায় মাননীয় মন্ত্রী তার বনানীর বাসভবনে লিয়ার বাবা মো: ফিরোজ মিয়ার হাতে ভোলা ন্যাশনাল ব্যাংক শাখায় করা আট লক্ষ টাকার এফডিআর ডকুমেন্টস হস্তান্তর করেন
ছবির ক্যাপসন: ০২ আঙ্গুলগুলো কেটে ফেলায় পঙ্গুত্ব হয়ে যায় নেয়ামতপুর হাইস্কুলের ষষ্ঠ শ্রেনীর ছাত্রী শামীমা আক্তার (লিয়া)

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 62 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ