কিডনী চুরির অভিযোগে রামেক চিকিৎসক গ্রেপ্তার

Print

নাটোর শহরের একটি বে-সরকারী হাসপাতালে রোগীর কাছ থেকে কিডনী চুরির অভিযোগে এক চিকিৎসককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। পুলিশের অভিযানের আগেই হাসপাতালের মালিকরা পালিয়ে গেছে।
নাটোর থানার এসআই মাসুদ রানা জানান, সিংড়া উপজেলার ছোট চৌগ্রামের আসমা বেগম প্রায় দুই বছর আগে নাটোর শহরের জনসেবা হাসপাতালে ডান কিডনীর পাথরের অপাশেন করান। অপারেশনের ৮ মাস ব্যাথা অনুভব করলে অন্য হাসপাতালে পরীক্ষা করলে সেসময় জানা যায় তার ডানপাশের কিডনী নেই।
সেসময় বিষয়টি জসসেবা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জানানো হলে তার কিডনী রয়েছে বলে যে চিকিৎসাপত্র দেয় তাতে আসমা বেগম সুস্থ হয়ে যান। সম্প্রতি তিনি আবার অসুস্থ হয়ে পরলে বুধবার অপর একটি হাসপাতালে পরীক্ষা করা হলে সেখানে পরীক্ষার পর আবার জানা যায় তার কিডনী নেই। বিষয়টি নিয়ে শুক্রবার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জানালে তারা কিডনী নেই বিষয়টি অস্বীকার করেন। এরপর শুক্রবার দুপুরে আসমা বেগমের ছেলে রবিউল ইসলাম নাটোর সদর থানায় অভিযোগ করেন।
পুলিশ বিকেলে জনসেবা হাসপাতালে অভিযান চালিয়ে সেখানকার চিকিৎসক ও রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সার্জারী বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আব্দুল হান্নানকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তবে পুলিশী অভিযানের আগেই পালিয়ে যায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তবে গ্রেপ্তার ডাক্তারের দাবি কিডনী চুরি হয়নি। কিডনী ছোট হয়েছে। পরীক্ষার পর বিস্তারিত জানা যাবে বলে দাবি করেন চিকিৎসক আব্দুল হান্নান।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 158 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ