কুমারখালীতে হয়ে গেল মাদার অব হিউম্যানিটি বিশ্ব নেতা শেখ হাসিনা শীর্ষক আলোচনা সভা।

Print

কুমারখালীতে হয়ে গেল মাদার অব হিউম্যানিটি বিশ্ব নেতা শেখ হাসিনা শীর্ষক আলোচনা সভা।

গত কাল বিকাল ৪.৩০ মিনিটে বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলা কুমারখালী উপজেলা শাখার আয়োজনে স্থানীয় গড়াই কমপ্লেক্সের তৃতীয় তলায় মাদার অব হিউম্যানিটি বিশ্বনেতা শেখ হাসিনা শীর্ষক আলোচনা সভা ও কিছু ছবি কিছু কথা- অভি চৌধুরী অ্যালবাম বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানের কুমারখালীর সর্বজন শ্রদ্ধেয় ঐতিহ্যবাহী কুমারখালী এম এন পাইলট হাই স্কুলের প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক আব্দুল মুত্তালিবের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।

 

উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ডাঃ এ এফ এম আমিনুল হক রতন, প্রধান আলোচক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলার ঢাকা মহানগর দক্ষিনের সভাপতি, প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার আমেরিকা, চীন, ভারতের সফর সঙ্গী সাংবাদিক নেতা অভি চৌধুরী, বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন কুমারখালী উপজেলা জাসদের সাধারন সম্পাদক এ্যাডভোকেট জয়দেব বিশ্বাস, সদকী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মজীদ, কুমারখালী পৌর আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি জাকারিয়া খান জেমস, কুমারখালী পৌরসভার বার বার নির্বাচিত কাউন্সিলর (প্যানেল মেয়র) হারুন-অর-রশীদ, আরো মঞ্চে উপবিষ্ট ছিলেন নিতাই কুমার কুন্ডু সাধারন সম্পাদক বাংলাদেশ ভারত সম্প্রীতি পরিষদ কুষ্টিয়া জেলা কমিটি, উক্ত অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সুভাষ দত্ত, সদস্য সচিব, বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলা কুমারখালী উপজেলা শাখা, প্রধান আলোচকের বক্তৃতায় অভি চৌধুরী বলেন জননেন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের জন্য আশির্বাদ তিনি বর্তমান বাংলাদেশের রূপকার তার নেতৃত্বে বাংলাদেশ বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পেড়েছে, দেশে আজ জিডিপি বৃদ্ধি পেয়েছে, শিক্ষার মান উন্নয়ন হয়েছে বিনা মূল্যে মাধ্যমিক পর্যন্ত বই বিতরন করা হচ্ছে যেটা বাংলাদেশে বিগত আমলে কেউ করতে পারেনি সেটা শেখ হাসিনা করে দেখিয়েছেন, মায়ানমার থেকে যখন রোহিঙ্গারা নির্যাতনের শিকার হয় যখন পালিয়ে আশ্রয়ের জন্য বাংলাদেশের ভুখন্ডে দশ লক্ষ রোহিঙ্গা ঢুকে পড়ে তিনি তাদের তাঁড়িয়ে না দিয়ে বরং তাদের কাছে মানবিক টানে ছুটে গিয়ে বিশ্বনেত্রী শেখ হাসিনা সে সব রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দিয়ে তাদের খাবার, চিকিৎসা, পোশাক এর ব্যবস্থা করেছেন সেই কার্যক্রম এখনও চলমান।

 

 

যেটা এ যাবত কালের কোন দেশের কোন রাষ্ট্র প্রধানই করেনি এতো বড় মানবিক সাহায্য শুধু এটা বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা বলেই করতে পেরেছেন, সে কারনেই বিশ্ব নেতারা বিশ্ব নেত্রী শেখ হাসিনাকে মাদার অব হিউম্যানিটি উপাধীতে আখ্যায়িত করেছেন।

 

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় ডাঃ এ এফ এম আমিনুল হক রতন বলেন প্রধান মন্ত্রী বিশ্বনেত্রী শেখ হাসিনাকে আগামী নির্বাচনে সবাইকে ভোট দিয়ে বাংলাদেশের উন্নয়নের ধারা অব্যহত রাখার আহবান জানান তিনি আরো বলেন দেশে আজ শুধু উন্নয়নের জোয়ার বইছে না দেশে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়ন বন্যা বইছে কাজেই দেশের ভালোর জন্য সকলকে স্বাধীনতার চেতনায় বিশ্বাসী হয়ে শেখ হাসিনাকে আবার নির্বাচিত করার আহবান জানান।

 

তিনি আরো ঘোষনা দেন বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলার সকল সদস্যকে তার কুষ্টিয়াস্থ তোফাজ্জল হেলথ ক্লিনিকে বিনা মূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হবে, এবং চার জন দুস্থ অসহায় মেধাবী ছাত্র ও ছাত্রী কে তার ডাঃ রতন ডাঃ লিজা মেডিকেল ও নার্সিং ইনিস্টিটিউটে বিনা খরচে পড়ার ব্যবস্থা করবেন।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 113 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ