কুড়িগ্রামে দ্বিতীয় দফা বন্যায় বন্যার্তদের দুর্ভোগ বেড়েছে

Print

সাইফুর রহমান শামীম,কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি ঃ
টানা বর্ষন ও উজানের ঢলে কুড়িগ্রামের উপর দিয়ে প্রবাহিত ব্রহ্মপুত্র, ধরলা, তিস্তাসহ সবকটি নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় আবারও বন্যা দেখা দিয়েছে।
বন্যা কবলিত হয়ে পড়েছে উলিপুর, চিলমারী, রৌমারী, রাজিবপুর, নাগেশ্বরী ও সদর উপজেলার ৩ শতাধিক গ্রাম। পানিবন্দী হয়ে পড়েছে এসব এলাকার প্রায় অর্ধ লক্ষাধিক মানুষ। বন্যা কবলিত বেশির ভাগ মানুষ পানিবন্দী থাকায় খাদ্য ও বিশুদ্ধ খাবার পানির সংকটে পড়েছে।
নি¤œাঞ্চলের পথ-ঘাট ও ঘর বাড়ি তলিয়ে থাকায় দুর্ভোগ বেড়েছে তাদের। কুড়িগ্রাম সদরের ভোগডাঙ্গা ইউনিয়নের চরবড়ইবাড়ী, চর জগমন, ক্লিনিক পাড়া(কুড়েরপাড়) গ্রাম ঘুরে দেখা গেছে ঘরবাড়ী ছেড়ে অধিকাংশ মানুষ গরু ছাগল সহ নিরাপদ স্হানে আশ্রয় নিয়েছে। রানু, এন্তাজুল সহ অনেকে জানান এখন পর্যন্ত বন্যা দুর্গতদের মাঝে সরকারী বা বে সরকারী হিসাবে কোন সাহায্য সহযোগীতা আসেনি
স্থানীয় পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ শফিকুল ইসলাম জানায়, গত ২৪ ঘন্টায় ধরলা নদীর সেতু পয়েন্টে পানি ৩৮ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার ২২সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এ সময় ব্রহ্মপুত্রের চিলমারী পয়েন্টে ৩০সেন্টিমিটার পানি
,কাউনিয়া পয়েন্টে তিস্তা নদীর পানি ১৫ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার নীচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 106 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
error: ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি