খোলা আকাশের নিচে পাঠদান

Print

খোলা আকাশের নিচে পাঠদানখুলনার রূপসা উপজেলার আনন্দনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে খোলা আকাশের নিচে পাঠদান চলছে। স্কুল ভবন পরিত্যক্ত ঘোষণা করায় শিক্ষার্থীরা বাধ্য হয়েই খোলা আকাশের নিচে শিক্ষাগ্রহণ করছে। শুধু আনন্দনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় নয়, খুলনা বিভাগের ১০ জেলায় ৫৪৫টি স্কুল ভবন পরিত্যক্ত করেছে কর্তৃপক্ষ।
ঝুঁকিপূর্ণ পরিত্যক্ত বিদ্যালয়বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক রবিউল ইসলাম বলেন, ২০১০ সাল থেকেই স্কুল ভবনটি জরাজীর্ণ রয়েছে। তারপরও সুষ্ঠু পাঠদানের স্বার্থে সেখানেই ক্লাস চলছিল। ২০১৫ সালের শেষ দিকে এসে ভবনটি ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। ফলে ২০১৬ সালের শুরুতেই স্কুল ভবনটি পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়। এরপর থেকে স্কুলের পাঠদান খোলা মাঠে চলছে। এখানে শিশু শ্রেণি থেকে ৫ম শ্রেণি পর্যন্ত ১৭০ জন শিক্ষার্থী রয়েছে। তীব্র রোদ ও বর্ষার সময় ক্লাস নেওয়া অসম্ভব হয়। সম্প্রতি একটি টিন শেড তৈরির বরাদ্দ পাওয়া গেছে। টিনশেডটি তৈরির কাজ চলছে।

এদিকে, খুলনা বিভাগে এমন নাজুক অবস্থা রয়েছে ১০ জেলার ৫৪৫টি স্কুলে। ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় বিদ্যালয় ভবনগুলোকে পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়েছে। যার মধ্যে খুলনায় ১০৫, বাগেরহাট ৮১, যশোর ৪৯, মাগুড়া ৩১, কুষ্টিয়া ৩৫, চুয়াডাঙ্গা ৩২, নড়াইল ৭৮, ঝিনাইদহ ৪৪, সাতক্ষীরা ৭৬ ও মেহেরপুরে ১৪টি বিদ্যালয় রয়েছে।
এসব বিদ্যালয়ের ৯০ হাজারের বেশি শিক্ষার্থীর শিক্ষাজীবন ব্যাহত হচ্ছে। ফলে স্কুলের পাঠদান চলছে খোলা আকাশের নিচে।
প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগ খুলনার কর্মকর্তা পারভিন জাহান জানান, ঝুঁকিপূর্ণ বিদ্যালয়ের তালিকা করে মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। তবে কবে নাগাদ এসব বিদ্যালয় সংস্কার হবে, তা জানাতে পারেননি তিনি।
খুলনার শিক্ষাবিদ অধ্যাপক সাধণ রঞ্জন ঘোষ বলেন, ‘প্রাথমিক শিক্ষার মানোন্নয়নে যখন দেশে বিনামূল্যে বই বিতরণ, বৃত্তি প্রদানসহ বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে, তখন ঝুঁকিপূর্ণ ভবনের কারণে বিদ্যালয়ে শিক্ষা পরিবেশন বিনষ্ট হওয়া দুঃখজনক।’
খুলনা মেডিক্যাল কলেজের মনোরোগ বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. এম ফরিদুজ্জামান বলেন, ‘শিক্ষার সঠিক পরিবেশন না থাকায় শিক্ষা ও শিক্ষা ব্যবস্থার প্রতি বিরুপ মনোভাব সৃষ্টি হচ্ছে এসব স্কুলের কোমলমতি শিশুদের। যা পরবর্তী জীবন ও কর্মক্ষেত্রে বিরুপ প্রভাব ফেলতে পারে।’

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 91 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ