খোলা আকাশের নিচে পড়ছে ওরা

Print

গণউন্নয়ন একাডেমি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অগ্নিকাণ্ডে আসবাবপত্রসহ ১০টি শ্রেণিকক্ষ পুড়ে গেছে। এরপরও থেমে নেই ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের লেখাপড়া। শিক্ষার্থীরা শনিবার সকাল থেকে খোলা আকাশের নিচে শুরু করেছেন ক্লাস।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আসাদুজ্জামান আসাদ জানান, বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে বিদ্যালয়ে আগুনের সূত্রপাত হয়ে মুহুর্তের মধ্যে তা চারপাশে ছড়িয়ে পড়ে। স্থানীয়দের সহায়তায় আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালানো হলেও রক্ষা করা যায়নি স্কুলটি। আগুনে অফিসকক্ষ, শিক্ষক মিলনায়তন ও পাঠাগারসহ ১০টি ক্লাস রুম, আসবাবপত্র, শিক্ষা সরঞ্জাম, আসন্ন এসএসসি পরীক্ষার্থীদের প্রবেশপত্র এবং ২০ হাজার এসএসসি ও জেএসসি পাস শিক্ষার্থীদের সনদপত্রসহ বিভিন্ন প্রয়োজনীয় কাগজপত্র পুড়ে গেছে।

তিনি আরও জানান, স্থানীয় বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা গণউন্নয়ন কেন্দ্রের অর্থায়নে ২০০৩ সালে বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত হয়। ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত ৫’শ ৭৩ জন শিক্ষার্থী এ প্রতিষ্ঠানে লেখাপড়া করে। অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে এসে কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে।
আসাদুজ্জামান জানান, সম্প্রতি স্থানীয় কিছু লোক নতুন একটি স্কুল প্রতিষ্ঠার পরিকল্পনা করে তার এ স্কুলের কার্যক্রমে বাধা দিয়ে আসছিল। এছাড়া একাডেমির পাশের এলাকায় মাদক, জুয়া, মদ ও যাত্রার নামে নাচ গানের আসর প্রতিরোধে বৃহস্পতিবার স্কুল কমিটির সঙ্গে স্থানীয়দের সমাবেশ হয়। এসব কারণে দুর্বৃত্তরা স্কুলে আগুন দিতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
তবে কে বা কারা আগুন দিয়েছে বা কাদের সঙ্গে বিরোধ ছিল সে বিষয়ে স্পষ্ট করে কিছু জানাতে পারেননি প্রধান শিক্ষক আসাদুজ্জামান।
সূত্র জানায়, দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ড কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য নতুন প্রবেশপত্রের ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিয়েছেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক। গাইবান্ধা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম মেহেদি হাসান জানান, বিষয়গুলো আমলে নিয়ে খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 195 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ