গরু চুরির অভিযোগে গৃহবধূকে গাছে বেঁধে নির্যাতন

Print

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে গরু চুরির অভিযোগ তোলে তার স্ত্রীকে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন করা হয়েছে। এর আগে তার ঘরও ভাঙচুর করা হয়। উপজেলার চিৎলা গ্রামে গত বৃহস্পতিবার এ ঘটনা ঘটে। নির্যাতনের শিকার গৃহবধূ কাজলী খাতুন হেয়াকে (৪২)স্থানীয় একটি ক্লিনিকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। আজ সোমবার (১৭ জুলাই) ওই গৃহবধূ মামলা করলে পুলিশ ওই গ্রামের আইয়ুব আলী, তার স্ত্রী মাহিরন নেছা ও ছেলে রাজু ওরফে উকিল এবং বাচ্চু, হাসান, সাহেব আলী, সেতু ও ফয়সালকে গ্রেফতার করে।
দামুড়হুদা থানার ওসি আবু জিহাদ মো. ফকরুল আলম খান বলেন, ‘গত বুধবার রাতে চিৎলা গ্রামের সিরাজুল ইসলামের গোয়াল ঘর থেকে দুটি হালের বলদ চুরি হয়। প্রতিবেশী তরল আলী গরু চুরি করেছে বলে অভিযোগ করেন সিরাজুল। বৃহস্পতিবার সকালে সিরাজুল তার লোকজন নিয়ে তরল আলীর বাড়িতে গিয়ে তাকে না পেয়ে তার ঘর ভাঙচুর ও লুটপাট করেন। ওই সময় তরল আলীর স্ত্রী কাজলী খাতুন স্থানীয় জুড়ানপুর বাজার থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। পথে সিরাজুল ইসলামের লোকজন তাকে ধরে বাড়ির পাশের বেলগাছের সঙ্গে বেঁধে মারধর করে। প্রায় ঘণ্টাখানেক ওই গৃহবধূকে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখা হয়। পরে এলাকার লোকজন কাজলীকে উদ্ধার করে স্থানীয় ক্লিনিকে ভর্তি করে।’

এ খবর পেয়ে সোমবার সকালে চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার নিজাম উদ্দীন ও সহকারী পুলিশ সুপার কলিমুল্লাহ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। পরে পুলিশের সহযোগিতায় কাজলী খাতুন বাদী হয়ে ৯ জনের নাম উল্লেখ করে থানায় মামলা করেন। এরপর পুলিশ গ্রামে অভিযান চালিয়ে ৮ জনকে গ্রেফতার করে। বিকালে তাদের চুয়াডাঙ্গা আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে বলে জানান দামুড়হুদা থানার ওসি।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 58 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ