ডিজিটাল বিপ্লব চলছে দেশে। প্রযুক্তির ছোঁয়ায় সবকিছুই এখন হাতের নাগালে। সেই ছোঁয়া থেকে বাদ নেই কোরবানির পশুর হাটও। ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে রাজধানীতে কোরবানির হাটগুলোতে এখনো পুরোদমে পশু কেনাবেচা শুরু না হলেও ইতোমধ্যে জমে উঠেছে অনলাইন কোরবানির হাট। যারা হাটে গিয়ে দরদাম করে কোরবানির পশু কেনার ঝক্কিঝামেলা পোহাতে চান না, তারা অনলাইনে কেনেন।

ফলে হাট থেকে গরু কিনে আনা ও কয়েক দিন বাড়িতে লালন-পালন করার ঝামেলা নেই। প্রবাসীরা অনলাইনে পশু কিনতে পারছেন বিদেশে বসেই।

ক্লাসিফায়েড অনলাইন ও ই-কমার্স সাইটগুলোর পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকেও বিভিন্ন গ্রুপ এবং পেজ খুলে চলছে কোরবানির পশু বিক্রি। গবাদিপশুর ছবি, বিবরণ ও দাম উল্লেখ করে কোন পশু কোন এলাকা থেকে আনা হয়েছে তারও বর্ণনা তুলে ধরা হয়েছে এসব পেইজে।

বিক্রয়.কম, আমারদেশ ই-শপ, বাংলামিট.কম, ক্লিকবিডি.কম ছাড়াও বিভিন্ন ওয়েবসাইটে কোরবানির পশু বিক্রির বিজ্ঞাপন পাওয়া যাচ্ছে। এসব সাইট ঘুরে দেখা গেছে, বিভিন্ন জাতের গরু ও ছাগল রয়েছে। তবে দেশি গরুর প্রাধান্যই বেশি। গরুর দাম ৬৫ হাজার থেকে শুরু করে কয়েক লাখ টাকা পর্যন্ত।

এছাড়া পেশাদার অনলাইন বাজারগুলোর (ই-কমার্স সাইট) পাশাপাশি ঈদকে কেন্দ্র করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে গড়ে উঠেছে বেশ কয়েকটি কোরবানির হাট। এসব সাইটে কোরবানির পশুর পাশাপাশি কোরবানি পশু জবাইয়ের বিভিন্ন সরঞ্জামাদিও বিক্রি করা হচ্ছে।

অনলাইন কোরবানির হাটের ফলে হাটের ঝক্কিঝামেলা থেকে ক্রেতারা মুক্ত থাকছেন, অন্য দিকে গরু-ছাগলের খামারিরাও প্রকৃত মূল্য পাচ্ছেন।