জাবিতে নানা আয়োজনে ৪৬তম বিশ্ববিদ্যালয় দিবস পালিত

Print


আরিফুল ইসলাম আরিফ,জাবি প্রতিনিধি:
নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) ৪৬তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর এ দিনটিকে ‘জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় দিবস’ হিসেবে পালন করেছেন। বৃহস্পতিবার উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম সকাল দশটায় বিজনেস স্টাডিজ অনুষদ চত্বরে এ দিবসের কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। জাতীয় পতাকা এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের পতাকা উত্তোলনের মধ্যদিয়ে দিবসের কর্মসূচি শুরু হয়।


উদ্বোধনী ভাষণে উপাচার্য সমবেত সকলকে বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানান। উপাচার্য বলেন, প্রতিষ্ঠার ৪৬ বছরে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীগণ দেশ-বিদেশে যে সম্মান অর্জন করেছেন, তাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের গৌরব অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। উপাচার্য বিশ্বজ্ঞান-বিজ্ঞান এবং শিল্প-সাহিত্য চর্চায় এ বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থান আরো উচ্চস্থানে নিয়ে যেতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অব্যাহতভাবে কাজ করার আহবান জানান।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের এগারোতম ব্যাচের বাংলা বিভাগের ছাত্র বর্তমানে নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক ড. রশীদ হারুন তাঁর সংগৃহীত দৈনিক পূর্বদেশ পত্রিকায় ১৯৭০ সালের ১২ জানুয়ারি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের সচিত্র সংবাদ বাঁধাই করে উপাচার্যের নিকট হস্তান্তর করেন।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর উপাচার্যের নেতৃত্বে বর্ণিল এক আনন্দ শোভাযাত্রা বিজনেস স্টাডিজ অনুষদ চত্ত্বর থেকে শুরু হয়ে চৌরঙ্গী মোড়, ট্রান্সপোর্ট, নতুন কলাভবন এবং অমর অকুশে প্রদক্ষিণ করে কেন্দ্রীয় ক্যাফেটেরিয়ায় গিয়ে শেষ হয়। শোভাযাত্রায় প্রো-উপাচার্য অধ্যাপক ড. আবুল হোসেন, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. আবুল খায়ের, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, সিন্ডিকেট ও সিনেট সদস্য, রেজিস্ট্রার, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারি ও পরিবার-পরিজন অংশগ্রহণ করেন।
বিশ্ববিদ্যালয় দিবসের দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালার মধ্যে সকাল এগারোটায় দানবীর আবদুল কাদির মোল্লা কনভেনশন সেন্টার এবং আইবিএ-জেইউ এর ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করা হয়। উপাচার্য এ দু’টি স্থাপনার ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন। সাড়ে এগারোটায় জহির রায়হান মিলনায়তনে সিনেমা প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। সাড়ে তিনটায় সেলিম আল দীন মুক্তমঞ্চে পুতুল নাচ, পাঁচটায় নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের উদ্যোগে নাটক এবং সন্ধ্যে সাতটায় ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের চত্বরে ফানুস উড়ানো হয়।


এদিকে, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৬ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে পুরো ক্যাম্পাসকে রঙবেরঙের তোরণ দিয়ে সাজানো হয়েছে। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবন, ক্যাফেটেরিয়া সহ গুরুত্বপূর্ণ ভবন সাজানো হয়েছে বর্ণিলরূপে।
আগামীকাল এ্যালামনাই ডে মিলনমেলা: আগামীকাল শুক্রবার ১৩ জানুয়ারি দ্বিতীয় এ্যালামনাই ডে মিলন মেলা অনুষ্ঠিত হবে। এ উপলক্ষে দিনব্যাপী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে। সকাল সাড়ে নয়টায় বিজনেস স্টাডিজ অনুষদ চত্বর থেকে শুরু হবে এ্যালামনাই ডে মিলনমেলার আনন্দ শোভাযাত্রা। সেলিম আল দীন মুক্তমঞ্চে সকাল সাড়ে দশটায় রয়েছে দ্বিতীয় ব্যাচে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা, সাড়ে এগারোটায় আলোচনা সভা, একটায় মধ্যাহ্নভোজ, আড়াইটায় স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠান। বিকেল পাঁচটায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং সন্ধ্যা সাতটায় অনুষ্ঠিত হবে র‌্যাফেল ড্র।
উল্লেখ্য, ১৯৭০ সালের ২০ আগস্ট তৎকালীন সরকার এক অডিন্যান্সের মাধ্যমে রাজধানী ঢাকার পূর্ব নাম জাহাঙ্গীরনগরের সঙ্গে মিলিয়ে জাহাঙ্গীরনগর মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয় নামকরণ করেন।পরবর্তিতে ১৯৭১ সালের ১২ জানুয়ারি পূর্ব পাকিস্তানের গভর্নর রিয়ার এডমিরাল এসএম আহসান বিশ্ববিদ্যালয়ের আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন। তাই ৪ জানুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়ের কাস শুরু হলেও ১২ জানুয়ারিকেই বিশ্ববিদ্যালয়ের দিবস হিসেবে পালন করা হয়।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 127 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ