ঝিনাইদহে লটারীর নামে জুয়া বন্ধ জুয়াড়িদের গ্রেফতারে আদালতের নির্দেশ !

Print


ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ
ঝিনাইদহ জেলার বিভিন্ন স্থানে মেলার নামে প্রকাশ্যে চলা জুয়ার আসর বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে ঝিনাইদহের একটি আদালত। বৃহস্পতিবার দুপুরে ঝিনাইদহের চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ জাকির হোসেন মিস কেস নং ১/১৫ মামলার প্রেক্ষিতে এই আদেশ দেন।

আদেশের কপি ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য তাৎক্ষনিক ভাবে ঝিনাইদহের বিভিন্ন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের কাছে পাঠানো হয়েছে। আদেশে বলা হয়েছে পত্রিকা ও বিভিন্ন মাধ্যমে ঝিনাইদহ শহরের নিউ একাডেমি স্কুল মাঠ, শৈলকুপার বসন্তপুর, ভাটই বাজার, হরিণাকুন্ডু ও মহেশপুরের বলিভাদ্রপুর এলাকায় জুয়ার আসর বসানো হয়েছে।

প্রকাশ্যে স্থানে জুয়ার আসর বসানো ১৮৬৭ এর ধারা ৩ অনুযায়ী দন্ডনীয় অপরাধ। এ সব জুয়ার আসরে তরুন সমাজসহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ আসক্ত হয়ে সামাজিক ব্যাধির সৃষ্টি করছে। এতে আইনশৃংখলার অবনতি ও সামাজিক অবক্ষয় ঘটছে।

আদালত ১৮৬৭ এর ধারা ৫ অনুযায়ী সংশ্লিষ্ট থানার ওসিদের জুয়ার আসনের সরঞ্জামসহ খেলার সাথে সংশ্লিষ্টদের গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করার নির্দেশ দিয়েছেন। এদিকে আদালতের নির্দেশের পরও জেলার বিভিন্ন স্থানে ফেরি করে লটারি বিক্রি করতে দেখা গেছে।

উল্লেখ্য, ঝিনাইদহ চেম্বারের নামে শহরের নিউ একাডিমি স্কুল মাঠ, মুক্তিযোদ্ধাদের নামে হরিণাকুন্ডু, প্রেসক্লাবের নামে শৈলকুপা ও ভুইফোড় ক্লাবের নামে মহেশপুরের বলিভাদ্রপুর গ্রামে যাত্রা ও সার্কসের আড়ালে হাউজি, জুয়া, ওয়নটেন, ফোরগুটি ও নগ্ন নাচের আসর বসানো হয়। ভুক্তভোগিদের অভিযোগ এসব কিছুই চলছে পুলিশ ও জেলা প্রশাসনের ছত্রছায়ায়।

এ নিয়ে বেশ কয়েক দিন পত্রিকা ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া দেখা যাচ্ছিল। অবশেষে বৃহস্পতিবার দুপুরে ঝিনাইদহের চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ জাকির হোসেন প্রকাশ্যে চলা জুয়ার আসর বন্ধের নির্দেশ দিয়ে বিভিন্ন থানার ওসিদের প্রতি আদেশ জারি করেন।

এ বিষয়ে ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি হরেন্দ্র নাথ সরকার বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে তিনটার দিকে জানান, আমি জেলার গান্না এলাকায় রয়েছি। আদালতের কোন আদেশ আমি এখনো হাতে পায়নি। আদেশ পেলে প্রয়োজীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবো।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 80 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ