ট্রাম্পের প্রথম সংবাদ সম্মেলনেই হট্টগোল

Print

নির্বাচিত হওয়ার পর হোয়াইট হাউসের প্রথম সংবাদ সম্মেলনেই চরম হট্টগোলে জড়িয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। রাশিয়ার সঙ্গে তার সম্পর্ক নিয়ে প্রচারিত ভুয়া খবর ও গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর সঙ্গে বৈঠকের দলিল ফাঁস হওয়ার ঘটনায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন ট্রাম্প।
সিএনএনকে ভুয়া খবর বলে উল্লেখ করলেন ট্রাম্পযুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রথম সংবাদ সম্মেলনে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন-এর প্রতিবেদকের সঙ্গে উত্তপ্ত বাক্যবিনিময়ে জড়িয়ে পড়েন। সিএনএন ভুয়া খবর প্রকাশ করে দাবি করে সংবাদমাধ্যমটির প্রতিবেদককে কোনও প্রশ্ন করতে দেননি ট্রাম্প। এ সময় তিনি সিএনএন প্রতিবেদকের সঙ্গে উত্তপ্ত বাক্যবিনিময়ে জড়িয়ে পড়েন।
বুধবার নিউ ইয়র্কে ট্রাম্পের কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ ঘটনা ঘটে।

সংবাদ সম্মেলনে সিএনএন প্রতিবেদক জিম অ্যাকোস্টা ট্রাম্পকে প্রশ্ন করার অনুমতি চাইলে ট্রাম্প বলেন, আপনারা ভুয়া খবর।
উল্লেখ্য, মঙ্গলবার সিএনএন একটি খবর প্রকাশ করে যাতে দাবি করা হয়, কর্মকর্তারা একটি প্রতিবেদন তৈরি করেছেন যাতে রাশিয়ার সঙ্গে তার সম্পর্কের বিষয়টি উঠে এসেছে। ট্রাম্প সিএনএন-এর দাবি মিথ্যা ও ভুয়া বলে আগেই টুইট করেছিলেন। সংবাদ সম্মেলনেও তা ভুয়া বলে উল্লেখ করেন।
রাশিয়ার সঙ্গে ট্রাম্পের সম্পর্কের ৩৫ পৃষ্ঠার দলিল মূলত প্রকাশ করে সংবাদমাধ্যম বাজফিড। ট্রাম্প বাজফিডকে উদ্দেশ করে বলেন, তাদেরকে এর পরিণতি ভোগ করতে। অবশ্য তারা এখনই পরিণতি ভোগ করে চলেছে।
সিএনএন-এর সিনিয়র হোয়াইট হাউস প্রতিনিধি ট্রাম্পকে প্রশ্ন করার জন্য অনুমতি চেয়ে সংবাদ সম্মেলনে বলেন, আমাদের সংবাদ প্রতিষ্ঠানকে আপনি যখন আক্রমণ করে যাচ্ছেন, আমাদের কি একটি প্রশ্ন করার সুযোগ দেবেন।
এর জবাবে ট্রাম্প বলেন, আপনাদের দেব না। না, আমি আপনাদের কোনও প্রশ্ন করতে দেব না। আপনারা ভুয়া খবর।
সংবাদ সম্মেলনে রাশিয়ার সঙ্গে তার সম্পর্ক নিয়ে প্রচারিত ভুয়া খবর ও গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর সঙ্গে বৈঠকের দলিল ফাঁস হওয়ার ঘটনায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন ট্রাম্প। নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন, আমার মনে হয় এটা ছিল লজ্জার, গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর বরাতে প্রকাশিত খবর মিথ্যা এবং ভুয়া। এটা এমন লজ্জাকর যে এ ধরনের কিছু শুধু জার্মানির নাৎসিরাই করত।
সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প স্বীকার করেন যে, ডেমোক্র্যাটিক ন্যাশনাল কমিটির হ্যাকিংয়ের নেপথ্যে রাশিয়ার জড়িত থাকার কথা। তবে ট্রাম্প রাশিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক আরও ঘনিষ্ঠ করার লক্ষ্য সম্পর্কে অবিচল থাকার কথা জানান। ট্রাম্প বলেন, পুতিন (রুশ প্রেসিডেন্ট) যদি আমাকে পছন্দ করেন তাহলে কোন দায় নয়, এটা সম্পদ।
ট্রাম্পের নিউ ইয়র্কের অফিসে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রায় ২৫০ জন সংবাদমাধ্যম প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন।
ট্রাম্প জানান, প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ায় এখন তার ব্যবসা দুই ছেলেই দেখবেন। এ নিয়ে তাদের সঙ্গে তার কোনও যোগাযোগ হবে না।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 113 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ