ট্রাম্প মানসিকভাবে ভয়াবহ অসুস্থ : দাবি মনোবিজ্ঞানীর

Print

নির্বাচনের আগে ডেমোক্রেট দলীয় প্রার্থী হিলারি ক্লিনটন রিপাবলিকান দলীয় প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পকে প্রেসিডেন্ট হওয়ার জন্য মানসিকভাবে অযোগ্য বলে দাবি করেছিলেন। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের অনেকেই সম্প্রতি হিলারির এই দাবির সঙ্গে একমত পোষণ করেছেন।

ক্লিনটন নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে ওই দাবি করলেও বেশ কয়েকজন মনোবিজ্ঞানী ট্রাম্পের মানসিক অবস্থা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। কারো সম্পর্কে মনোবিজ্ঞানীদের এ ধরনের দাবি এতদিন অবৈধ হিসেবে বিবেচিত হলেও সম্প্রতি সেই আইনে পরিবর্তন এসেছে। এই পরিবর্তনের পরেই মানসিক স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা ট্রাম্পের বিষয়ে মুখ খুলেছেন।

জনগণকে সতর্ক করে দিতে ট্রাম্পের বিষয়ে বেশ কিছু লক্ষণ প্রকাশ করেছেন। মনোবিজ্ঞানী জন ডি. গার্টনার বলেন, ট্রাম্প মানািসকভাবে ভয়াবহ অসুস্থ এবং মানসিক দিক থেকে প্রেসিডেন্ট হওয়ার অযোগ্য তিনি।
তিনি বলেন, ট্রাম্পের মাঝে ‘মারাত্মক আত্মমগ্নতা’র লক্ষণ দেখা গেছে। যা অসামাজিক ব্যক্তিত্ব ব্যাধি, আগ্রাসন ও অন্যের ওপর নিপীড়ন চালিয়ে যৌনসুখলাভের মতো মানসিক বিকারগ্রস্ততার প্রকাশ ঘটায়।
মনোবিজ্ঞানী ডা. জুলি ফুট্রেল নিউ ইয়র্ক ডেইলি নিউজকে বলেছেন, ৩০লাখ নারী বিক্ষোভ করেছে? কিন্তু তাকে বিচলিত করতে পারেনি। ট্রাম্প যেসব নীতি বাস্তবায়ন করছেন; জনগণ তা পছন্দ করেনি। কিন্তু তিনি এসবের কোনো তোয়াক্কা করেননি।
এর আগে, গত ডিসেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রের প্রখ্যাত তিন মনোবিজ্ঞানী প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার কাছে ট্রাম্পের মানসিক অসুস্থ্যতার কথা জানিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন। প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পরে হার্ভার্ড মেডিকেল স্কুল ও ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ার অধ্যাপকরা নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ‘পূর্ণ চিকিৎসা ও স্নায়ুবিক মনোরোগ মূল্যায়ন’ এ নির্দেশ দিতে বারাক ওবামার প্রতি আহ্বান জানান।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 187 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ