ড্রাম থেকে ফল ব্যাবসায়ীর গলা কাটা লাশ উদ্ধার।

Print

শামসুল খান,কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: কুষ্টিয়া শহরের চৌড়হাস মোড়ে অবস্থিত শাওন ফল ভাণ্ডারের মালিক রবিউল ইসলামের (২৪) গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।হত্যার পর রবিউলের মরদেহ চৌড়হাস মোড়ে অবস্থিত মামা-ভাগ্নে ফল ভাণ্ডারের গোডাইনের একটি ড্রামে রেখে বালু ফেলে চাপা দিয়ে রাখা হয়।

এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে নিহতের আপন খালাতো ভাই নুর আলমকে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার বিকেলে দিকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত রবিউল ইসলামের বাড়ি মাদারিপুর জেলার টেকের হাট উপজেলার শংকরদিয়া গ্রামে। তিনি চৌড়হাস এলাকায় মামা নুর হোসেনের বাসায় থাকতেন।

স্থানীয়রা জানান, সকালে বাড়ি থেকে দোকানে উদ্দেশ্যে বের হন রবিউল। খালাতো ভাই পাশের মামা-ভাগ্নে ফল ভাণ্ডারের মালিক নুর আলম পূর্বশত্রুতার জের ধরে তার দোকানে ডেকে নিয়ে যায়। এ সময় পেছন থেকে নুর আলম হাতুড়ি দিয়ে রবিউলের মাথায় আঘাত করলে সে অজ্ঞান হয়ে যায়। রবিউলের হাত-পা কাপড় দিয়ে বেঁধে গলাকেটে হত্যা করে প্লাস্টিকের ড্রামে রেখে বালু চাপা দিয়ে দোকানের গোডাউনে লুকিয়ে রাখে। পরে স্থানীয়রা টের পেয়ে পুলিশকে জানালে পুলিশ এসে মরদেহ ভর্তি ড্রামটি বের করে এনে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

কুষ্টিয়া মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাসির উদ্দিন জনান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে নিহতের খালাতো ভাই নুর আলম হত্যার বিষয়টি স্বীকার করেছেন। তবে কি কারণে তাকে হত্যা করা হয়েছে তা তদন্তের পর জানা যাবে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 270 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
error: ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি