ঢাকার আয়তন বেড়ে দ্বিগুণ

Print
ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের সঙ্গে যুক্ত হলো আটটি করে মোট ১৬টি ইউনিয়ন। এতে ঢাকা সিটি করপোরেশনের আয়তন বেড়ে দ্বিগুণ হলো। প্রশাসনিক পুনর্বিন্যাস-সংক্রান্ত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি (নিকার) এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে গতকাল সচিবালয়ে নিকারের সভা অনুষ্ঠিত হয়। dew

সভা শেষে মন্ত্রিপরিষদসচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন। তিনি জানান, ঢাকা মহানগরের চারপাশে ১৬টি ইউনিয়ন রয়েছে। এ ইউনিয়নগুলো একীভূত করে দেওয়া হয়েছে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের সঙ্গে। ঢাকা উত্তরের সঙ্গে বেরাইদ, ভাটারা, বাড্ডা, সাঁতারকুল, হরিরামপুর, উত্তরখান, দক্ষিণখান ও ডুমনি ইউনিয়ন যুক্ত হয়েছে। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে যুক্ত হয়েছে শ্যামপুর, মাতুয়াইল, ডেমরা, দনিয়া, সারুলিয়া, দক্ষিণগাঁও, নাসিরাবাদ ও মাণ্ডা।

দুই সিটি করপোরেশনের সঙ্গে ইউনিয়নগুলো যুক্ত হওয়ার কারণে ঢাকার আয়তন বেড়ে দ্বিগুণের বেশি হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদসচিব বলেন, ‘দুই সিটি করপোরেশনের আয়তন ছিল ১২৯ বর্গকিলোমিটার। এখন তা বেড়ে হচ্ছে ২৭০ বর্গকিলোমিটার। ২০১১ সালের হিসাব অনুযায়ী ওই ১৬টি ইউনিয়নের জনসংখ্যা ১০ লাখের মতো। সভায় চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার কর্ণফুলী থানাকে উপজেলায় উন্নীতকরণের সিদ্ধান্ত হয়েছে। এর ফলে দেশে উপজেলার সংখ্যা দাঁড়াল ৪৯০টিতে। পাঁচটি ইউনিয়ন নিয়ে কর্ণফুলী উপজেলা গঠন করা হবে। বর্তমানে কর্ণফুলী থানায় মোট ৯ লাখ ৬২ হাজার ১৪০ জন বাস করে।

মন্ত্রিসভা বৈঠক সংক্রামক রোগ প্রতিরোধ ও নির্মূল আইন অনুমোদন : সংক্রামক রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিকে চিকিৎসার জন্য পরীক্ষা-নিরীক্ষা না করালে (ওই ব্যক্তি নিজে বা তিনি যার অধীন থাকবেন) শাস্তির বিধান রেখে ‘সংক্রামক রোগ প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল আইন, ২০১৬’-এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। সচিবালয়ে গতকাল সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদসচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন। সব ধরনের সংক্রামক রোগ এ আইনের আওতায় আনা হয়েছে। সব ধরনের সংক্রামক রোগ প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূলের জন্য এ আইনটি করছে সরকার।

আইনের বিধান লঙ্ঘনে শাস্তির বিধান রয়েছে জানিয়ে মন্ত্রপরিষদসচিব বলেন, আইনে সংক্রামক রোগে আক্রান্ত সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে নির্দিষ্ট স্থানে শারীরিক ও ল্যাবরেটরি পরীক্ষা করার কথা বলা হয়েছে। এটা কেউ না মানলে বা প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করলে তাকে কারাদণ্ড বা অর্থদণ্ডের বিধান রয়েছে। আইন অনুযায়ী সংক্রামক রোগে আক্রান্ত কেউ অন্য দেশ থেকে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে চাইলে এয়ারপোর্টেই তাদের চিহ্নিত করা হবে এবং আলাদা করে রাখা হবে। এ ছাড়া বৈঠকে ‘ক্যাডেট কলেজ আইন, ২০১৬’-এর খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

বৈঠক শেষে একজন সিনিয়র মন্ত্রী কালের কণ্ঠকে জানান, প্রধানমন্ত্রী মন্ত্রিসভা বৈঠকে বলেছেন জয়ের বিরুদ্ধে খালেদা জিয়া যে অভিযোগ করেছেন তা খালেদা জিয়াকেই প্রমাণ করতে হবে। এ সময় আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন যে অভিযোগ করেন তাকেই তা প্রমাণ করতে হয়।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 29 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ