তারকার বসন্তবরণ

Print

বাঙালি সংস্কৃতির এক অনন্য উৎসব বসন্তবরণ। ফুল ফুটুক আর না ফুটুক- আজ বসন্ত। কবি সুভাষ মুখোপাধ্যায়ের কবিতার ছন্দে তাল মিলিয়ে বাঙালি জাতি আজ হবে একাকার। মিডিয়ার তারকারাও দিনটিকে উদযাপন করেন নিজের মতো করে। যদিও শুটিং কিংবা শো নিয়েই এ সময় ব্যস্ত থাকেন সবাই। তবুও এর মাঝে বসন্তকে স্বাগত জানান তারা। কীভাবে কাটবে তাদের আজকের দিনটি? মিডিয়ার কয়েকজন তারকার বসন্তবরণ নিয়ে এ আয়োজন
প্রকৃতিতে চলে মধুর বসন্তের সাজসাজ রব। আর এ সাজে মন রাঙিয়ে গুনগুন করে অনেকেই আজ গেয়ে উঠবেন পছন্দের কোনো গান। আমার জীবনে বসন্ত পুরো বছরই থাকে। আমি সারা বছরই গানের মধ্যে থাকি। গানই আমার বসন্তকাল। আজও আমার গানের রেকর্ডিং আছে। প্রকৃতির বসন্তের বাতাস গায়ে মেখে গাইতে গাইতে যাব স্টুডিওর দিকে। তবে হ্যাঁ, বসন্তের চিরায়ত রঙ বাসন্তী আমার পরণে ঠিকই থাকবে। বাঙালি হিসেবে এই সংস্কৃতিকে উপভোগ তো করতেই হবে।

কুমার বিশ্বজিৎ, সঙ্গীতশিল্পী
বসন্ত উদযাপনের সময় যখন হয় তখন আমি বরাবরই শুটিং নিয়ে ব্যস্ত। আজও শুটিং করছি। অহংকার ছবির শুটিং নিয়েই ব্যস্ততা যাচ্ছে। ইউনিটের সবাইকে বসন্তের শুভেচ্ছা জানিয়েই দিনের প্রথম কাজ শুরু করব। এতগুলো কাজ, কখন শেষ করব সেটাই এখন মাথায় ঘুরপাক খাচ্ছে। বিশেষ কোনো স্মৃতি নেই। আজকের দিনে দর্শক, ভক্ত সর্বোপরী দেশবাসীকে জানাই বসন্তের ফুলেল শুভেচ্ছা। সবাই ভালো থাকুক, এ কামনাই করি।
শাকিব খান, চিত্রনায়ক
কোনো দিবস এখন যেভাবে পালন করা হয় আগে সেভাবে পালন করা হতো না। আগে বন্ধু-বান্ধবীদের সঙ্গে বসন্তের প্রথম দিন শাড়ী পড়ে ঘুরতে বের হতাম। এখন সেরকম কিছু হয় না। বেশির ভাগ সময় এখন কাজ নিয়ে ব্যস্ত থাকতে হয়। বিভিন্ন শোয়ের কারণে মেয়েদের সময় দিতে পারিনি, এমনও হয়েছে। এ বছরের ফাল্গ–নেও তাই। আজ সকাল থেকে বাসায় থাকব কিছুক্ষণ। তারপর শোয়ের জন্য বের হতে হবে। সাভার ক্যান্টনমেন্টে সন্ধ্যা থেকে একটি শোতে গান গাইবো। শো-এর বাইরে দিনটি নিয়ে তেমন কোনো পরিকল্পনা নেই।
আঁখি আলমগীর, সঙ্গীতশিল্পী
পহেলা ফাল্গন নিয়ে বিশেষ কোনো পরিকল্পনা নেই। আজ বাসাতেই থাকব। বিকালের দিকে একটু বের হতে পারি। তবে সেটা বসন্তের সাজে কিংবা ভ্রমণে নয়। কিছু ব্যক্তিগত কাজ রয়েছে, সেগুলোর জন্যই। অতীতেও বসন্তের আগমনী দিনটি এভাবেই কেটেছে। দিনটি নিয়ে তেমন কোনো পরিকল্পনা থাকে না। এবারও নেই। তবে অনেকেই বসন্তের শুভেচ্ছা জানিয়ে মেসেজ করেন। বিষয়টা ভালো লাগে আমার কাছে। সবাইকে বসন্তের শুভেচ্ছা।
পপি, চিত্রনায়িকা
আজ বসন্ত। যদিও এ সময় ফুলের সমারোহে প্রকৃতি সাজার কথা ছিল। কিন্তু ঋতুর অনিয়মতান্ত্রিকতায় এবার তা হয়তো হচ্ছে না। কিন্তু মনের বসন্ত ঠিকই আছে। দিনের শুরুতেই অনন্তকে ফুলের শুভেচ্ছা জানাব। ছেলেকে নিয়েই দিনের বেশিরভাগ সময় কাটবে। ইদানীং অফিসেও সময় দিতে হয়। এক ফাঁকে অফিসে যাব। বসন্তের বিশেষ কোনো স্মৃতি নেই। এমনিতে অনেকেই এ দিনে শুভেচ্ছা জানাতেন। আমার ভক্ত, দর্শক সবাইকে বসন্তের শুভেচ্ছা।
বর্ষা, চিটত্রনায়িকা
কোনো ফাল্গ–নেই তেমন কোনো পরিকল্পনা থাকে না। এবারও নেই। তবে বসন্তের প্রথম দিনটা বেশ ব্যস্ততার মধ্য দিয়ে যাবে। কারণ শুটিংয়ের জন্য ব্যাংককে উড়াল দিতে হবে। সেই প্রস্তুতির দৌড়ে এখন আছি। এছাড়াও সম্প্রতি আমার প্রেমী ও প্রেমী ছবিটি মুক্তি পেয়েছে। এ ছবির প্রচারণায়ও অংশ নিচ্ছি। আর বসন্ত নিয়ে আমার বিশেষ কোনো স্মৃতি নেই। কারণ কোনো ফাল্গ–নেই বিশেষ কেউ ছিল না। পরিবারের সঙ্গেই দিনগুলো কেটেছে।
নুসরাত ফারিয়া, চিত্রনায়িকা
অতীতের প্রায় বসন্তের প্রথম দিন শুটিং সেটে কেটেছে। বুঝিইনি দিনটি কিভাবে কেটে গেল। রাস্তায় বের হওয়ার পর বুঝতে পেরেছি বসন্তের হাওয়া গায়ে লেগেছে সবার। আজ যে ফাল্গ–নের প্রথম দিন এটাও মনে ছিল না। আসলে এত বেশি শুটিংয়ের চাপ থাকে যে, কোনো কিছু ভাবার সময়ই পাই না। যথারীতি আজ শুটিংয়েই দিনটি কাটাব। বসন্তের কোনো বিশেষ স্মৃতি নেই। যেহেতু আজ মনে পড়েছে, তাই সেটে সবাইকে নিয়ে একটু আনন্দ করব। সবাইকে বসন্তের শুভেচ্ছা।
সজল, মডেল-অভিনেতা
নিলয় : এবার ফাল্গ–ন আমরা মালয়েশিয়া কাটাচ্ছি। আমি আর শখ কাজের ফাঁকে ঘোরাঘুরিও করছি। দেশে থাকলে হয়তো শখের সঙ্গে বসন্তের পোশাক পরে বিকালটা ঘুরতে বের হতাম। কিন্তু মালয়েশিয়া থাকায় বসন্তের পোশাক না পরেই ঘুরছি। এদেশে বসন্ত বরণ নেই!
শখ : দেশে থাকলেও হয়তো সারা দিন শুটিংয়েই থাকতে হতো। তবে শুটিং শেষে একটু সময় করে হলেও বের হতাম। এখন তো মালয়েশিয়া আছি। এখানে বসন্তের কোনো আমেজ নেই।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 177 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ