দলনেতাসহ সাতজনকে তিনদিন করে রিমান্ড

Print

রাজধানীর উত্তরায় স্কুলছাত্র আদনান হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগে কথিত ডিসকো বয়েজ এবং বিগ বস গ্রুপের দলনেতাসহ সাতজনকে তিনদিন করে রিমান্ড দিয়েছেন আদালত।
বৃহস্পতিবার তাদের ঢাকা সিএমএম আদালতে হাজির করে মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা উত্তরা পশ্চিম থানার উপ-পরিদর্শক শাহীন মিয়া। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম একেএম মাঈদউদ্দিন সিদ্দিকী প্রত্যেকের তিনদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

রিমান্ডে নেয়া সাতজন হলেন- ডিসকো বয়েজের দলনেতা শাহরিয়ার বিন সাত্তার সেতু ওরফে রায়হান আহমেদ সেতু ওরফে ডিসকো সেতু (২২), বিগবস গ্রুপের দলনেতা মো. আক্তারুজ্জামান ছোটন (১৯), জাহিদুল ইসলাম জুইস (২১), শাহীনুর রহমান (১৭), সেলিম খান (২৩), ইব্রাহিম হোসেন ওরফে সানি (২৮) ও মিজানুর রহমান সুমন (২২)।
বুধবার র‌্যাবের কারওয়ানবাজারের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে বাহিনীর লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরেই উত্তরার একাধিক গ্যাংয়ের মধ্যে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে কোন্দল হচ্ছিল। এরই জেরে ‘নাইনস্টার’ গ্রুপের নেতা তালাচাবি রাজুকে আক্রমণ করতে চেয়েছিল ‘ডিসকো বয়েজ’ ও ‘বিগবস গ্যাংয়’র সদস্যরা। তবে তাকে না পেয়ে সেই দলের আদনান কবিরকে আঘাত করে হত্যা করে কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা।
তিনি জানান, টার্গেট রাজু ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে গেলে এই দুই গ্রুপের সদস্যরা ধারালো অস্ত্র ও হকিস্টিক দিয়ে নাইনস্টার গ্রুপের সদস্য আদনান কবিরকে আঘাত করে। এতে আদনানের মৃত্যু হয়। এর আগে মঙ্গলবার রাতে এই দুই গ্যাংয়ের আটজনকে আটক করে র‌্যাব। তাদের মধ্যে জুইস সরাসরি আদনানকে আঘাত করে আর বাকিরা পরিকল্পনা থেকে শুরু করে ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিল বলে তদন্তে প্রমাণ পেয়েছে র‌্যাব।
মুফতি মাহমুদ খান বলেন, বিগবস গ্রুপটি ডিসকো বয়েজের সহযোগী হিসেবে কাজ করে। আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে নাইনস্টার গ্রুপ ও ডিসকো বয়েজ গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। এরই ধারাবাহিকতায় ৩ জানুয়ারি উত্তরা ১৩ নং সেক্টরের ব্রিজের ওপর ডিসকো বয়েজ ও বিগবস গ্রুপের সদস্যরা নাইনস্টার গ্রুপের দলনেতা রাজুকে মারধর করে। প্রতিউত্তরে ৫ জানুয়ারি আজমপুর ফুটওভার ব্রিজের গোড়ায় নাইনস্টার গ্রুপের সদস্যরা বিগবস গ্রুপের ছোটনকে আক্রমণ করে।
এরপর থেকেই রাজুকে হত্যার পরিকল্পনা করে ডিসকো গ্যাং ও বিগবস গ্রুপের সদস্যরা। তবে রাজু ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে গেলে আদনানের ওপর তারা আক্রমণ করে। আটককৃতদের মধ্যে শাহরিয়ার ও ছোটন আদনান হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত আসামি। বাকিদের এ মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে তোলা হবে বলে জানা গেছে। এর আগে ৬ জানুয়ারি উত্তরায় হকিস্টিক দিয়ে পিটিয়ে ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে স্ক্রু ঢুকিয়ে হত্যা করা হয় আদনান কবিরকে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 129 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ