দামি ব্র্যান্ডের লোগো ডাইসের মাধ্যমে বসিয়ে দেওয়া হয় টিভি সেটের ওপর

Print

দামি ব্র্যান্ডের মনোগ্রামযুক্ত এই স্টিকার বসিয়ে দেওয়া হয় টিভি সেটের ওপর। এ ধরনের এক হাজার স্টিকার আজ বুধবার সুন্দরবন স্কয়ার মার্কেট ও কাপ্তানবাজারের ছয়টি দোকান থেকে র‍্যাবের অভিযানে উদ্ধার হয়। সংগৃহীতনামী ব্র্যান্ডের স্টিকারযুক্ত এলইডি টিভি সেটের ছড়াছড়ি। স্যামসাং, এলজি, সনি সবই মেলে। নির্ধারিত দোকানের চেয়ে টিভিগুলোর দামও অর্ধেকেরও কম রাখা হয়। ক্রেতারা অল্প দামে নামী ব্র্যান্ডের টিভি কিনে নেন খুশি মনে। প্রথম দিকে টিভি সেটের পর্দায় ছবির মান খুব একটা খারাপ থাকে না। কিন্তু কিছুদিন যেতে না যেতেই ঘটে বিপত্তি। তবে বিপত্তি হলে সারানোর উপায় নেই। কারণ বিক্রয়োত্তর সেবা পাওয়া যায় না। ক্রেতাদের অগত্যা ফেলে দিতে এ ধরনের টিভি সেট।
এমন ধরনের ৪১টি টিভি সেট জব্দ করা হয়েছে আজ বুধবার রাজধানীর গুলিস্তানের সুন্দরবন স্কয়ার মার্কেটের আলী ইন্টারন্যাশনাল কোম্পানি, উষা এন্টারপ্রাইজ, এসএম আলী ইলেকট্রনিকস, আলী ইলেকট্রনিকস, ব্রাদার্স ইলেকট্রনিকস ও সিয়াম ইলেকট্রনিকস নামের ছয়টি দোকান থেকে। র‍্যাব-৩-এর ভ্রাম্যমাণ আদালতের এই অভিযানে তিনটি দোকান থেকে স্যামসাং, এলজি ও সনি মনোগ্রামের এক হাজার স্টিকার, সফটওয়্যার ও স্টিকার বসানোর সরঞ্জাম পাওয়া যায়।

দামি ব্র্যান্ডের লোগো ডাইসের মাধ্যমে বসিয়ে দেওয়া হয় টিভি সেটের ওপর। এ ধরনের এক হাজার স্টিকার আজ বুধবার সুন্দরবন স্কয়ার মার্কেট ও কাপ্তানবাজারের ছয়টি দোকান থেকে র‍্যাবের অভিযানে উদ্ধার হয়। ছবি: সংগৃহীতনকল টিভি বিক্রির দায় স্বীকার করায় তিনটি দোকানকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করেন র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম। এর মধ্যে আলী ইন্টারন্যাশনালের মালিক হজরত আলীকে দুই লাখ টাকা ও ব্যবস্থাপক শাহীন আলমকে ছয় মাসের কারাদণ্ড, উষা এন্টারপ্রাইজের মালিক মো. ইসমাইলকে আড়াই লাখ টাকা ও ব্যবস্থাপক সোহেল হোসেনকে ৫০ হাজার টাকা, এসএম ইলেকট্রনিকসের মালিক মো. আলীকে ৭৫ হাজার টাকা, কাপ্তানবাজারের আলী ইন্টারন্যাশনালের মালিক মো. আলীকে ৪ লাখ টাকা, ব্রাদার্স ইলেকট্রনিকসের আমানউল্লাহকে ৪০ হাজার এবং সিয়াম ইলেকট্রনিকসের মালিক দেলোয়ারকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম বলেন, চীন থেকে খুব কম দামে অর্ডার দিয়ে এলইডি টিভি সেট তৈরি করা হয়। একটি ২১ ইঞ্চি এলইডি টিভি সেটের দাম সাড়ে ৩ হাজার টাকা থেকে ৪ হাজার টাকা, ৪২ ইঞ্চি টিভির দাম ১০ হাজার ও ২৪ ইঞ্চি টিভি সেটের দাম ৭ হাজার থেকে ৮ হাজার টাকায় চীন থেকে কেনা হতো। এরপর মিথ্যা তথ্য দিয়ে এ ধরনের টিভি সেট বাংলাদেশে আনতেন দোকান তিনটির মালিকেরা। দোকানে রেখে স্যামসাং, এলজি ও সনি মনোগ্রামের স্টিকার বসানো হতো।চীন থেকে তৈরি করে আনা টিভি সেটের ওপর দামি ব্র্যান্ডের বসিয়ে দেওয়া হয়। এ ধরনের ৪১টি টিভি সেট আজ বুধবার সুন্দরবন স্কয়ার মার্কেট ও কাপ্তানবাজারের ছয়টি দোকানে র‍্যাবের অভিযানে উদ্ধার করা হয়।
ক্রেতাদের ধোঁকা দিতে কম্পিউটারে সফটওয়্যার বসিয়ে দেওয়া হতো। যার ফলে টিভি সেট চালু করলে ইংরেজিতে স্যামসাং, এলজি কিংবা সনি লেখা পর্দার ভেসে ওঠে। এ কথা জানিয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম বলেন, প্রতিটি টিভি সেটে প্রায় ১০ হাজার টাকা মুনাফা করতেন অসাধু ব্যবসায়ীরা। সুন্দরবন স্কয়ার মার্কেট থেকে পাইকারি মূল্যে দেশের বিভিন্ন স্থানে এ ধরনের নকল টিভি সরবরাহ করা হতো।
বেলা ১১টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত অভিযান শেষে আলী ইলেকট্রনিকসকে সিলগালা করা হয়। এ সময় র‍্যাব-৩ এর কোম্পানি কমান্ডার মেজর ফাহিম আদনান সিদ্দিকী উপস্থিত ছিলেন।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 151 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ