নবাবগঞ্জে ঐতিহ্য হারাচ্ছে বক্তারনগর জমিদার বাড়ী

Print

( মোঃ জাকির হোসেন ) ঢাকা দোহার প্রতিনিধি : ঢাকার নবাবগঞ্জ থেকে অবহেলায় হারিয়ে যাচ্ছে ঐতিহ্যবাহী বক্তারনগর জমিদার বাড়ী। প্রায় ৪ শত বছরের পুরাতন ইতিহাস সবার চোখের সামনে চলে যাচ্ছে অগোচরে এবং চিরতরে ধুঁয়ে মুছে যাচ্ছে এই নবাবগঞ্জের ইতিহাস। জানা যায়, ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলার বান্দুরা ইউনিয়নে বক্তারনগর উপজেলা থেকে ১৭ কিঃ মিঃ পশ্চিমে ইছামতি নদীর কূল ঘেষে প্রায় ৪ শত বছর আগে জমিদার সুলতান শাহাবুদ্দিন শাহ ৫ বিঘা জমির উপড় তৈরি করেন একটি দ্বীতল ভবন। এর পর থেকে এই বাড়ীতে সহপরিবারে বাস করতেন তিনি। সুলতান শাহাবুদ্দিন শাহ ‘ র মৃত্যুর পর তার ছেলে সুলতান আবু বক্তার শাহ কয়েক বছর বাস করেন। তখনকার দিনে যোগাযোগ ব্যাবস্থা ভাল না থাকায় তাদের জমিদারী রেখে দিয়ে চলে যায় ঢাকার নবাববাড়ীতে। সুলতান আবু বক্তার এর নাম অনুসারে বক্তার নগর গ্রাম। জমিদার বক্তার শাহ ঢাকার নবাববাড়ীতে যাওয়ার পর থেকে চার শত বছর ধরে অবিভাবক হীন জমিদার বাড়ীটিকে আপন ভেবে জড়িয়ে আছে বনের আগাছা আর জংগলে। সরেজমিনে দেখা যায়, বাড়িটির এক কোনে আস্তানা গড়েছে স্থানীয় বখাটেরা এবং মাঠে ঘোড়া, গরু ও ছাগলের পাল ঘোরে বেড়াচ্ছে। স্থানীয়রা জানায়, সরকারী সহযোগিতায় হতে পারে এটি একটি জাদুগর নয়তো কোন শিক্ষা ভবন।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 82 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ