নিজামীর ফাঁসিতে মনঃক্ষুণ্ন পাকিস্তান

Print

একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে জামায়াতে ইসলামীর আমির মতিউর রহমান নিজামীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হওয়ায় পাকিস্তান গভীর মন:ক্ষুণ্ন। তারা মনে করে তাঁর একমাত্র অপরাধ ছিল পাকিস্তানের সংবিধান ও আইন সমুন্নত রাখা।
আজ বুধবার পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দেওয়া এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, ১৯৭১ সালের ডিসেম্বরের আগের ‘কথিত অপরাধে’ মতিউর রহমান নিজামীকে ফাঁসি দেওয়া হয়েছে।
বিরোধী দলকে দমনের উদ্দেশে ত্রুটিপূর্ণ বিচারের মাধ্যমে বিরোধী নেতাদের হত্যা করা হচ্ছে; যা গণতন্ত্রের পুরোপুরি পরিপন্থী। বাংলাদেশের যেসব জনগণ মতিউর রহমান নিজামীকে সংসদ প্রতিনিধি নির্বাচিত করেছিলেন তাঁদের জন্যও তাঁর ফাঁসি কার্যকর করাটা দুর্ভাগ্যজনক।

এতে বলা হয়েছে, বিচার প্রক্রিয়া শুরুর পর থেকেই কয়েকটি আন্তর্জাতিক সংগঠন, মানবাধিকার সংস্থা, আন্তর্জাতিক আইন বিশেষজ্ঞ বিচারের কার্যক্রম বিশেষ করে এর নিরপেক্ষতা ও স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে। পাশাপাশি অভিযুক্তদের আইনজীবী ও সাক্ষীদের নানাভাবে হয়রানির খবরের ব্যাপারে আপত্তি জানিয়েছে। এমনকি বাংলাদেশ সরকার বিচার বিভাগের স্বাধীনতার ওপর হস্তক্ষেপের জন্য পদক্ষেপ নেওয়ায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় আপত্তি জানিয়েছে।

পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, ১৯৭৪ সালের ত্রিপক্ষীয় চুক্তির অংশ হিসেবে ক্ষমাশীলতার পদক্ষেপ হিসেবে বাংলাদেশ বিচার প্রক্রিয়া এগিয়ে না নিতে রাজি হয়েছিল। চুক্তি অনুযায়ী বাংলাদেশকে সেই অঙ্গীকার সমুন্নত রাখা উচিত।

পাকিস্তান নিজামীর পরিবার ও তাঁর সমর্থকদের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 28 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ