পদ্মায় নিখোঁজের তিন দিনেও উদ্ধার হয়নি দুই শিক্ষার্থীর মৃত দেহ

Print
( মোঃ জাকির হোসেন ) ঢাকা দোহার প্রতিনিধি : ঢাকার দোহারে মিনি কক্সবাজার মৈনট পদ্মানদীতে নিখোঁজের তিন দিনেও উদ্ধার হয়নি বেসরকারী বিশ্ব বিদ্যালয় দুই শিক্ষার্থী মাহিনা ও সজলের মৃত দেহ। মাহিন ঢাকা মিরপুর ভাসানটেক এলাকার মাহমুদ আলম এর ছেলে সজল হাতিরপুল এলাকার শহিদুল ইসলাম ছেলে। দুই ছাত্রের স্বজন দিন রাত অপেক্ষা করছে মৈনট পদ্মার পাড়ে। স্থানীয় ও পুলিশ সুত্রে জানাযায়, শুক্রবার বিকেলে ঢাকার দোহার উপজেলার কুসুমহাটি ইউনিয়নের মিনি কক্সবাজার মৈনট পদ্মার পাড়ে ঢাকা থেকে একদল শিক্ষার্থী পিকনিকে আসে। ফুটবল পদ্মা নদীতে চলে গেলে মাহিন ও সজলসহ চার বন্ধু নদীতে ঝাপ দেয় বল তুলে আনার জন্য। দুই বন্ধু নদী থেকে উঠে আসলেও নদীতে ডুবে যায় মাহিন ও সজল। মাহিন ও সজলের মা সায়লা এবং হনুফা ভানু জানায়, মাহিন ও সজল কেউ সাঁতার জানেনা। এই ব্যাপারে দোহার থানা তদন্ত কর্মকর্তা সোহেল রানা জানায়, তারা সাতার না জানায় পদ্মার জলে তলিয়ে যায়। তাদের সান্তনা দেওয়ার জন্য  উপস্থিত হন সাবেক মন্ত্রী ও আওয়ামীলীগের সভাপতি সদস্য এ্যাডভোকেট আব্দুল মান্নান খান এবং দোহার উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা কেএম আল আমিন, দোহার থানার ওসি সিরাজুল ইসলামসহ অনেকে। সাবেক মন্ত্রী নির্দেশ দেন জরুরী ভাবে পদ্মা থেকে দুৃই ছাত্রের মৃত খুঁজে বের করা হোক।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 176 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ