পরীমনির সিনেমায় আসার আগের জীবনে তার কথিত ‘স্বামীর’ সাথে অন্তরঙ্গ বেশকিছু ছবি নিয়ে চলছে তোলপাড়।
‘ক্ষুব্ধ’ পরীমনি বলেছেন, ‘ভাবখানা এমন যে আমার সেক্স ভিডিও পেয়ে গেছেন! ওরে ভাই এরকম ছবি আমার হাজার জনের সঙ্গে আছে ’পরীমনির অতীত জীবনের ‘অজানা গল্প’ , কথিত স্বামীর সাথে ছবি, মিডিয়া গসিপ ও নেপথ্য সত্য অনুসন্ধানে একটি নির্মোহ বিশ্লেষণ !

 সকাল থেকেই অনলাইন মিডিয়াগুলোতে তোলপাড় হালের ক্রেজি নায়িকা পরিমনীর একগাদা ছবি । পরিমনীর এই ছবিগুলো অবশ্য তার নায়িকা হবার আগের জীবনের। ছবিগুলো সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে মুহুর্তেই ভাইরাল হয়ে পড়ে ।

ঢাকাই চলচ্চিত্রের আলোচিত নায়িকা পরীমনির কথিত স্বামীর ছবি নিয়ে সরগরম সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক। অনিক আব্রাহাম নামের এক ব্যক্তি রবিবার সকালে ফেসবুকে প্রকাশ করেছেন স্বামীর সঙ্গে নায়িকা পরীমনির ছবি। এ ছবি নিয়েই শুরু হয়েছে তোলপাড়। সবাই জানতে চাইছেন সত্যিই কি পরীমনির সঙ্গে থাকা ছেলেটি তার স্বামী?

স্বভাবতই এই নায়িকাকে নিয়ে দর্শকদের আছে ব্যাপক কৌতুহল। তার উপরে ছবি প্রকাশকারির দাবী অন্তরঙ্গ ছবিগুলোর সাথে থাকা যুবক পরীর স্বামী ! এবং সেই প্রকাশকারী যুবক পরীর কথিত স্বামীর বন্ধু। স্মৃতিচারন করতেই সে শুধু পরীর ছবিগুলো ফেসবুকে দিয়েছে।
তবে ছবিগুলো নিয়ে দেশের একটি জাতীয় দৈনিকের অনলাইন সংস্করনে প্রকাশিত সংবাদের পরেই মুলত আলোচনায় আসে ব্যাপারটি।ঘটনার শুরুটা হয় ইসমাইল নামে কথিত স্বামীর সঙ্গে পরীমনির ছয়টি ছবি পোস্ট করে অনিক আব্রাহাম ফেসবুকে স্ট্যাটাসে দেয়ার পর । আব্রাহাম নামের ঐ ফেসবুক ব্যবহারকারী ভাঙ্গা ভাঙ্গা বাংলায় লিখেছেন,

‘আমার বন্ধু ইসমাইল আর তার স্ত্রী স্মৃতি মনি, যে আজ বাংলা চলচ্চিত্রের আলোচিত নায়িকা পরীমনি। এক সময় ভোলা সদরেই থাকত তার জামাইর বাড়িতে। তারপর তার নেশা গেল অর্থ আর লোভ-লালসার দিকে। যার জন্য আমার সহজ-সরল বন্ধুকে ত্যাগ করতে দ্বিধাবোধ করল না। যাই হোক ছবিগুলো দেখে পুরোনো দিনের কথা মনে পড়ে গেল। তাই সবার সঙ্গে একটু শেয়ার করলাম।’

pori-iner-3_2

হাজারো মানুষের একি প্রশ্ন তাহলে কি পরীর নাম স্মৃতি?  আর তার ইসমাইল নামে একজন ‘স্বামী’ ছিল? এরকম প্রশ্ন অনেকেরই মনে খেলা করছে ছবিগুলো দেখার পর।  তাহলে সত্যটা কি?
ব্যাপক গোলমেলে এমন প্রশ্নের বিক্ষিপ্ত সব উত্তর মিললো ঐ সংবাদের প্রতিবাদে পরিমনীর দেয়া একটি ক্ষুব্ধ স্ট্যাটাসের পর।
প্রচন্ড ‘ক্ষুব্ধ’ পরিমনী তার স্ট্যাটাসে জুড়ে দিলেন আরও কয়েকজনের সাথে অন্তরঙ্গ মুহূর্তের কিছু ছবি। জানালেন, আজকের ক্যুইজ বলুনতো আমার পাশের এই ছেলেগুলার সাথে আমার কি সম্পর্ক ? হাজব্যান্ড  রাইট ?
(1)-Pori-Moni(2)

 

জানালেন,

‘ভাবখানা এমন যে আমার সেক্স ভিডিও পেয়ে গেছেন! ওরে ভাই এরকম ছবি আমার হাজার জনের সঙ্গে আছে ’ তারমানে এই না যে সেই হাজার জন আমার জামাই লাগে । আর কি এমন পিকচার খানা পাইছেন জেইখানা নিয়ে এত্ত লাফালাফি শুরু কইরা দিছেন?ছবিটায় কি আমি বৌ সেজে বাসর ঘরে বসে আছি ? না আমি ন্যাংটা হয়ে দাঁড়ায় আছি কোনটা ? —–

(1)-Pori-Moni
এরপর বিভিন্ন গনমাধ্যম থেকে পরীকে এই ছবির বিষয় নিয়ে ফোন করা হলে তিনি জানিয়েছেন , ‘ছবির ছেলেটি আমার কাজিন। ছোটবেলা থেকেই তাকে আমি চিনি। তাছাড়া এ ছবিতে এমন কী আছে যে ছেলেটিকে আমার স্বামী বলা হচ্ছে। সত্যিই যদি সেটা হয় তবে প্রমাণ হাজির করুক।’পরীমনি আরও বলেন, ‘কারও সঙ্গে ছবি থাকলেই সে আমার স্বামী হয়ে যায় না। তাছাড়া যার সঙ্গে ছবি সে তো ছবিগুলো প্রকাশ করেনি। তার এক বন্ধু উদ্দেশ্যপ্রণোদিত হয়ে ছবিগুলো প্রকাশ করেছেন। তারকাদের নিয়ে এ রকম গসিপ থাকেই। এখন আমার কোলে কোনো বাচ্চা নিয়ে ছবি তুললেই নিশ্চয় সেই বাচ্চাটা আমার হয়ে যাবে না?’

Pori-home-1

তবে এই ঘটনাকে ‘গসিপ’ উল্লেখ করে এসব  না ছড়ানোর জন্য পরীমনি অনুরোধ করেন। তিনি বলেন, ‘তারকাদেরও ব্যক্তিজীবন আছে। তাদের সঙ্গে অনেকেই ছবি তোলেন। সেই ছবি নিয়ে পরে অনেকেই এমন স্ক্যান্ডাল ছড়ায়।’

আপডেট ।এদিকে, রাত না পোহাতেই রোববার রাত ১০ টায় শাকিল রিয়াজ নামের একজন ফেসবুক ব্যবহারকারী দিলেন চমকপ্রদ আরো এক তথ্য, এতদিন মিডিয়া জানতো পরীমনি অবিবাহিত;  কিন্তু শাকিল তার ফেসবুকে ৬ টি ছবি পোষ্ট করে লিখেছেন ,

একটু আগে পরীমনি ভাবী নিয়ে একটা পোস্ট দেখলাম,যেখানে ভাবীকে নিয়ে বিভিন্ন বিভ্রান্তিকর স্ক্যান্ডাল ছড়ানো হয়েছে। আসল সত্য হয়তো অনেকেই জানেননা। পরীমনির আসল নাম সামসুর নাহার স্মৃতি। ভাবী আমাদের খুব কাছের বড় ভাইয়ের বৌ। ভাইয়ের নাম সৌরভ কবীর। ভাবীকে নিয়ে এইসব বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়ানোর কারোনে আমি আর মুখবুজে থাকতে পারলাম না। আমার মনেহল এখনই সময় আসল সত্যটা সবার সামনে তুলে ধরা উচিৎ।

ভাই এবং ভাবীর বিয়ে হয় “”২৮ এপ্রিল ২০১২””
৩ বছর প্রেম করার পরে তারা নিজেদের ইচ্ছায় বিয়ে করে এবং পরে সেটা দুইপরিবার থেকেই মেনে নেয়।ভাইয়ের বাসা যশোরের কেশবপুরে।ভাই এবং ভাবীর নিজেদের পেশার জগত আলাদা। ভাই পেশায় একজন প্রফেশনাল ফুটবলার। ভাই এবং ভাইয়ের পরিবারের সম্মতিতেই ভাবী মিডিয়া জগতে প্রবেশ করে।

ছবি -শাকিল রিয়াজের ফেসবুক থেকে নেয়া

ছবি -শাকিল রিয়াজের ফেসবুক থেকে নেয়া

ভাই এবং ভাবীর নিজেদের ক্যারিয়ারের কথা চিন্তা করে তাদের এ সম্পর্কের কথা আড়াল করে রেখেছে। তারা এখনো একসাথে বিবাহিত জীবনযাপন করছেন।

কিন্তু আজকের এ ঘটনার পরে আমি আর মুখ বুজে থাকতে পারলাম না। আসল সত্য সবার সামনে তুলে ধরলাম।
ভাই এবং ভাবী আপনারা কিছু মনে করলেও আমি বাধ্য হয়ে এই পোস্টটি করলাম।

আমার এই পোস্ট নিয়ে যদি কারো কোন সন্দেহ থেকে থাকে তাহলে আমরা প্রমান দেওয়ার জন্য প্রস্তুত।

তবে শাকিল রিয়াজ নামের ঐ ফেসবুক ব্যাবহারকারির দেয়া এসব তথ্য ও ছবির বিষয়ে জানতে একাধিকবার সময়ের কণ্ঠস্বরের পক্ষ থেকে পরীমনির সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও সাড়া মেলেনি ।

অন্যদিকে, শাকিল রিয়াজের ফেসবুকেও চলছে যুক্তি- তর্কের ঝড়। অনেকেই মানতে নারায এমন তথ্য। মন্তব্যের ঘরেই দেখা গেলো কথিত বর সৌরভ হাজির। নিজের পরিচয়ে বলছেন, তিনি বলছেন,  Sourav Kabir ভাই আমি খুলনা ব্রাদার্স এর হয়ে ঘরোয়া লিগ খেলেছি লাস্ট সিজন! এবার ঢাকা বিজেএমসি তে কথা চলতেছে বাট এখনো ফাইনাল হয়নি—–

নেপথ্যের আসল সত্যটা আসলে কি,  সেটা জানতে আরও কিছু সময় অপেক্ষায় থাকতে হবে সবার ।প্রসঙ্গত, ২০১৩ সালের শেষের দিকে চলচ্চিত্রে পা রাখার পর থেকেই একের পর এক ধামাকা দিয়েছেন পরীমনি। বড় পর্দায় অভিনয়ের সুযোগ পেয়েই টিভি পর্দাকে বিদায় জানিয়েছিলেন কালের ক্রেজ এ অভিনেত্রী। বড়পর্দাতে নিজেকে মেলে ধরার প্রত্যয়ে ২০১৩ সালের ডিসেম্বরে নির্মাতা শাহ আলম মন্ডলের ভালোবাসা সীমাহীন সিনেমায় কাজ শুরু করেন ঢালিউডের এই লাস্যময়ী কন্যা। এরপর আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে।