পুলিশকে কামড়ে পালাল আসামি

Print

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে করা মামলার এক আসামিকে জাপটে ধরেছিল একদল পুলিশ। এ সময় আসামিকে ছাড়াতে লাঠি ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে পুলিশের ওপর হামলা চালান আসামির পরিবারের নারী সদস্যরা। আসামি এই সুযোগে দুই কনস্টেবলের হাত কামড়ে ছুটে পালিয়ে যান।
আজ বৃহস্পতিবার সকাল পৌনে ১০টার দিকে ময়মনসিংহের নান্দাইল পৌরসভার পাঁচ নম্বর ওয়ার্ডের চারিআনিপাড়া মহল্লার সিদ্দিক মিয়ার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় নান্দাইল মডেল থানার এক উপপরিদর্শকসহ (এসআই) চার পুলিশ সদস্য আহত হন।

আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন এসআই মো. আলীমুজ্জামান, কনস্টেবল মো. সুজন মিয়া, রহুল আমীন ও মঞ্জুরুল ইসলাম। তাঁরা নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে চিকিৎসা নিয়েছেন।
এসআই আলীমুজ্জামান বলেন, একটি মাদক মামলার আসামি হলেন চারিআনিপাড়া মহল্লার সিদ্দিক মিয়ার ছেলে শাহাবুদ্দিন। পুলিশ জানতে পারে, শাহাবুদ্দিন নান্দাইল পৌরশহরের নতুন বাজার থেকে ব্যাটারিচালিত ইজিবাইকে করে বাড়িতে যাচ্ছেন। এরপর ওসির নির্দেশে থানা থেকে পুলিশের একটি দল নিয়ে তিনি আসামির পিছু নেন। আসামি তাঁর বাসায় ঢোকার মুখে তাঁকে জাপটে ধরে হাতকড়া পড়ানোর চেষ্টা করে এসআই ফিরোজ আহমেদ। এ সময় বাড়ির নারী সদস্যরা লাঠি ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে পুলিশের ওপর হামলা চালায়। পুলিশও তাঁদের লাঠিপেটা করে। এই সুযোগে দুই কনস্টেবলের হাতে কামড় বসিয়ে শাহাবুদ্দিন পালিয়ে যান। পরে সিদ্দিক মিয়া ও শাহাবুদ্দিনের স্ত্রীকে আটক করে পুলিশ থানায় নিয়ে যায়।
ঘটনার বিষয়ে জানতে এই প্রতিবেদক সিদ্দিক মিয়ার বাড়িতে গিয়ে কাউকে পাননি। আশপাশের বাসিন্দারা জানান, ঘটনার পর থেকে বাড়ির লোকজন গা ঢাকা দিয়েছেন।
নান্দাইল মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আতাউর রহমান বলেন, পুলিশের ওপর হামলা চালানোর ঘটনায় মামলা করার প্রস্তুতি চলছে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 115 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ