প্রেমের টানে সীমান্ত পার, জেল খেটে ফেরত

Print

প্রেমের টানে সীমান্ত পার, জেল খেটে ফেরতপ্রেম মনেনা কোন বাঁধা। একথা সকলেরই জানা। তবে তা আবারো নতুন করে স্মরণ করিয়ে দিলেন ভারতের তরুণী পম্পা রানী (২০)।

জানা গেছে, পম্পার বাড়ি বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী ভারতের পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলার করিমপুর থানার শিকারপুর কুঠিপাড়ায়। অসিত মণ্ডলের এই মেয়ে শিকারপুর দেবনাথ কলেজের ছাত্রী।

পম্পা জানান, কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার আদাবাড়িয়া ইউনিয়নের সীমান্ত সংলগ্ন গ্রাম ধর্মদহের খেজু মালিথার ছেলে আমজাদ আলীর সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিয়ে করতে তিনি নদী পথে সীমান্ত পার হয়ে বাংলাদেশে আসেন। গত ৭ জুন সীমান্ত পাড়ি দেওয়ার পর আমজাদ আলীর সঙ্গে পম্পার বিয়েও হয়। কিন্তু এই খবর পেয়ে দৌলতপুর থানার বেরসিক পুলিশ পম্পাকে অবৈধ অনুপ্রবেশের অভিযোগে আটক করে। পরে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশের দায়ে ভারতীয় এই তরুণীকে ছয় মাস কারাদণ্ড দিয়েছিল বাংলাদেশের কুষ্টিয়ার আদালত। সেই থেকে পম্পা কুষ্টিয়া কারাগারেই ছিলেন। এর মধ্যে তার সাজার আদেশ হয়।

কুষ্টিয়া কারাগারে গত ছয় মাস বন্দি থাকার পর পম্পা রানীকে পুলিশ সোমবার বিজিবির কাছে তুলে দেয়। এরপর বিজিবি দর্শনা সীমান্তে তাকে ভারতের সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর কাছে হস্তান্তর করে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 208 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ