প্রেম যন্ত্রণায় অতিষ্ঠ শান্ত

Print

রংপুর কারমাইকেল কলেজের ছাত্র সাঈদ আনোয়ার শান্ত। বেগম রোকেয়া কলেজের ছাত্রী মাসুদা আক্তার। চলার পথে দেখা। এরপর ভালো লাগা থেকে ভালোবাসা। টানা ৬ মাস চলে প্রেম। প্রেমের একপর্যায়ে প্রেমিক শান্তর কাছে প্রেমিকা মাসুদার চারিত্র্যিক বৈশিষ্ট্য ফুটে উঠে। এরপর প্রেমের সম্পর্কে ইতি টেনে তাকে এড়িয়ে চলেন শান্ত। এতে ক্ষুব্ধ হন প্রেমিকা।
সে কয়েকজন বখাটে ছেলেকে দিয়ে কারমাইকেল কলেজ চত্বর থেকে শান্তকে নিয়ে কলেজের পিছনে কেবি ছাত্রাবাসের সরস্বতী মন্দিরের একটি ঘরে ভয়ভীতি দেখিয়ে আটকে রাখে। এরপর কাজী ডেকে ১০ লক্ষ ১ টাকা দেনমোহর ধার্য করে জোরপূর্বক বিবাহ রেজিস্ট্রি করেন মাসুদা।

বাসায় জানাজানি হলে পিতা লেখাপড়ার খরচ বন্ধ করে দেবেন- এ শঙ্কায় বিষয়টি গোপন রেখে চিন্তিত হয়ে পড়েন শান্ত। এরপর যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও না পেয়ে কিছুদিন পর আবারো মাসুদা কারমাইকেলের লালবাগ কলেজ গেটের সামনে শান্তর কলার টেনে ধরে এবং লোকজনকে জড়ো করে বলে আমাকে বিয়ে করে খোঁজ-খবর নেয় না, পালিয়ে বেড়ায়। একপর্যায়ে মাসুদা অটোরিকশায় করে শান্তকে তাজহাটে নিয়ে যান। সেখানে তার ভাড়াটে বখাটে ছেলেরা শান্তকে লাঞ্ছিত করে মোবাইল ফোনে তার পিতাকে হুমকি-ধমকি দিয়ে এ বিয়ে মেনে নেয়ার জন্য বলে। পরে সংবাদ সম্মেলন করে শান্ত তার জীবনের কাহিনী বর্ণনা করেন। তিনি বলেন, মাসুদা নিজেকে স্ত্রী দাবি করে যখন-তখন টাকা চায়। সেই সঙ্গে আমার বাবাকে জানায়, আমরা প্রেম করে বিয়ে করেছি। আমাকে ঘরে তুলে নিন। এতে আমার লেখাপড়া বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়েছে। এসব কর্মকাণ্ডে অতিষ্ঠ হয়ে একপর্যায়ে সে মাসুদাকে বলে এ বিয়ে মানি না। তোমার সঙ্গে আমার সংসার হবে না। তখন মাসুদা উত্তেজিত হয়ে দেনমোহরের ১০ লক্ষ ১ টাকা দাবি করেন।
শান্ত টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে মাসুদা গুণ্ডা দিয়ে তাকে পিটিয়ে নারী নির্যাতন মামলায় জড়ানোর হুমকি দেন। মাসুদা বলেন, আইন নারীদের পক্ষে, তোমার জীবন ধ্বংস করে দেবো। এতে বিপাকে পড়েছেন শান্ত। শান্ত বলেন, ভালোবাসাই আমার জীবনে কাল হয়ে দাঁড়ালো। আমি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। আগামী মাসে অনার্স তৃতীয় বর্ষের ফাইনাল পরীক্ষার সময় বড় ধরনের ক্ষতি করতে পারে মাসুদা।
তাই নিরাপত্তা চেয়ে ২৯শে জানুয়ারি রংপুর কোতোয়ালি থানায় জিডি করেছি। এ ব্যাপারে মাসুদা আক্তারের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি। উল্লেখ্য, রংপুর কারমাইকেল কলেজের ছাত্র সাঈদ আনোয়ার শান্ত লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার রসুলগঞ্জের সিরাজুল ইসলামের পুত্র এবং মাসুদা আক্তার রংপুর বুড়াইলহাট এলাকার ছেয়াদ আলীর কন্যা।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 630 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ