ফুটবলকেই বিদায় বলে দিলেন চিলির ভিদাল

Print

বিশ্বকাপ তাদের প্রায় নিশ্চিত। পয়েন্ট টেবিলে ছিল তিন নম্বরে। কিন্তু চিলির কী দুর্ভাগ্য। শেষ ম্যাচটিই খেলতে হলো তাদের ব্রাজিলের বিপক্ষে। তাও ব্রাজিলের মাঠে গিয়ে। ম্যাচ মাঠে গড়ানোর আগে অনেক কতা শোনা গিয়েছিল, চিলিকে ম্যাচ ছেড়ে দিতে পারে ব্রাজিল। আর্জেন্টিনা যাতে বিশ্বকাপে খেলতে না পারে সে জন্য। কিন্তু নেইমার বলে দিয়েছিলেন, মেসিকে সঙ্গে নিয়েই বিশ্বকাপে খেলতে যাবো।
সে কারণে নিজেদের মাঠে চিলিকে একচুলও ছাড় দিল না ব্রাজিল। ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত করেছে নেইমার-গ্যাব্রিয়েল জেসুস এবং পওলিনহোরা। এই এক হারেই বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বে ওঠার আগেই ছিটকে পড়তে হয়েছে চিলিকে। পঞ্চম হলেও প্লে-অফ খেলার সুযোগ পেতো। কিন্তু চিলি হয়েছে ৬ষ্ঠ।

অথচ এই চিলিই ২০১৫ এবং ২০১৬ কোপা আমেরিকায় টানা দুইবার চ্যাম্পিয়ন। দু’বারই তারা হারিয়েছে আর্জেন্টিনার মত পরাশক্তিকে। সবাই ধরে নিয়েছিল, পরের বিশ্বকাপে হয়তো দারুণ কিছু করে দেখাবে আলেক্সিজ সানচেজ এবং আরতুরো ভিদালের দেশ।
কিন্তু সেটা আর সম্ভব হলো কই। বিশ্বকাপে উঠতে না পারার ক্ষোভে শেষ পর্যন্ত তাই আন্তর্জাতিক ফুটবলকেই বিদায় জানিয়ে দিলেন বায়ার্ন মিউনিখের মিডফিল্ড সুপারস্টার আরতুরো ভিদাল। ৩০ বছর বয়সী ভিদাল নিজেই নিশ্চিত করলেন এ তথ্য।
চিলির হয়ে আন্তর্জাতিক ফুটবলে মোট ৯৯টি ম্যাচ খেলেছেন ভিদাল। ২০০৭ সালে অভিষেক হয়েছিল তার। গোল করেছেন ২৩টি। তবে, তার নামের পাশে লেখা হয়েছে দুটি কোপা আমেরিকার শিরোপা। চিলির সোনালি প্রজন্মের অন্যতম প্রতিনিধি ভাবা হয় তাকে।
ব্রাজিলের কাছে হেরে বিশ্বকাপ নিশ্চিত না হওয়ার কারণে চিলির কোচের দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন হুয়ান আন্তোনিও পিজ্জি। ধারনা করা হচ্ছে চিলির সোনালি প্রজন্মের আরও কয়েকজন যেমন গ্যারি মেডেল এবং ক্লদিও ব্র্যাভোও অবসরের ঘোষণা দিতে পারেন।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 51 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ