ফেসবুকে ভাইরাল সালমান শাহর ফাঁসির দড়ি ও আলামত

Print

‘সত্যের মৃত্যু নেই’ চলচ্চিত্রে সালমান শাহর চরিত্রটি ছিল একজন ফাঁসির আসামীর। যে কিনা মিথ্যা মামলায় জেলখানায় অপেক্ষা করে মৃত্যুর। কিন্ত সেই চলচ্চিত্রে শেষ পর্যন্ত সত্যের জয় হয়। ফাঁসিতে ঝুঁলতে হয় না সালমান শাহকে। কিন্তু নিয়তি আর কাকে বলে, বাস্তব জীবনে ফাঁসির দড়ি ঠিকই গলায় পরতে হল এই তুমুল জনপ্রিয় অভিনেতাকে।
দড়িটা নিজে পরেছেন নাকি তাকে কেউ পরিয়ে দিয়েছে সেই বিতর্ক আদালতপাড়া পর্যন্ত গড়িয়েছে। দীর্ঘ ২১ বছর ধরে সালমান শাহর মা নীলা চৌধুরী নিজের সন্তানের ‘হত্যা মামলা’ চালিয়ে যাচ্ছেন। তিনি মনে করেন তার ছেলেকে হত্যা করে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে। সেই সিলিং ফ্যান ও ফাঁসির দড়ি সম্প্রতি ঘুরে বেড়াচ্ছে ফেসবুকে। নানান জনের ওয়ালে ঘুরে ঘুরে ছবিটি এখন ভাইরাল। সালমান ভক্তরা এই ছবিটি শেয়ার দিয়ে নিজেদের মনের প্রতিক্রিয়া জানাচ্ছেন প্রিয় অভিনেতার মৃত্যু বিষয়ে।

শুধু ফাঁসির দড়ির ছবি না মৃত্যুর পর দিন সালমান শাহর বাসা থেকে আরো যেসব আলামতের ছবি তোলা হয়েছিল সেসব ছবিও ভাইরাল হয়েছে।
বলে রাখা ভালো, ৬ সেপ্টেম্বর ১৯৯৬ সালে সালমান শাহর মৃত্যুর পর তারা বাবা কমরউদ্দিন আহম্মদ চৌধুরী একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করেন। ১৯৯৭ সালের ২৪ জুলাই তিনি আদালতে মামলাটি করেছিলেন। একই বছর ৩ নভেম্বর সিআইডি পূর্ণাঙ্গ তদন্ত দাখিল করে জানায় সালমান শাহর অপমৃত্যু হয়েছিল।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 291 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ