বনানীতে ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় কোনও ভিডিও পাওয়া যায়নি

Print

রাজধানীর বনানীতে রেইনট্রি হোটেলে দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় কোনও ভিডিও ফুটেজ পাওয়া যায়নি বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।
শনিবার দুপুরে ঢাকা মহানগর পুলিশের মিডিয়া সেন্টারে সাংবাদিকদের একথা জানান ডিএমপির উপকমিশনার (মিডিয়া) মাসুদুর রহমান।

তিনি বলেন, বনানীতে ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় কোনও ভিডিও ফুটেজ পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় গ্রেফতার সবাইকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে, তবে তারা জানিয়েছে- সেখানে ভিডিও করার কোনও ঘটনা ঘটেনি।
মাসুদুর রহমান বলেন, রেইনট্রি হোটেলের সিসি ক্যামেরাতেও এ ধরনের কোনও আলামত মেলেনি। গ্রেফতার ব্যক্তিদের মোবাইল ফোনেও ওই ঘটনা সম্পর্কিত কোনও ভিডিও পাওয়া যায়নি।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা যদি মনে করেন তাহলে হোটেল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে এ ব্যাপারে কথা বলবেন বলে জানিয়েছেন ডিসি মাসুদুর রহমান।
তিনি বলেন, গ্রেফতার ব্যক্তিরা জিজ্ঞাসাবাদে বলেছে ভিডিও করা হয়নি, তারপরও তাদের মোবাইল ফোন ও অন্যান্য আলামতের ফরেনসিক পরীক্ষা করে দেখা হবে এ সংক্রান্ত কোনও তথ্য রয়েছে কিনা।
গত ২৮ মার্চ রাতে রাজধানীর বনানীর রেইনট্রি হোটেলে পূর্বপরিচিত ‘আপন জুয়েলার্সের’ কর্ণধার দিলদার আহমেদের ছেলে সাফাতের জন্মদিনের অনুষ্ঠানে গিয়ে রাতভর ধর্ষণের শিকার হন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রী। এ ঘটনায় গত ৬ মে বনানী থানায় করা মামলায় ৫ জনকে আসামি করা হয়।
সাফাত ছাড়া মামলায় অন্য আসামিরা হলেন—সাফাতের বন্ধু সাদমান সাকিফ ও নাঈম আশরাফ এবং তার দেহরক্ষী বিল্লাল হোসেন ও গাড়িচালক রহমত আলী।
ওই ঘটনার মামলার পাঁচ আসামিকেই গ্রেফতার করে রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। গ্রেফতার ব্যক্তিরা ধর্ষণের কথা প্রাথমিকভাবে স্বীকার করেছে বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়।
নির্যাতনের শিকার বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই দুই ছাত্রী আদালতে জবানবন্দিতে বলেছেন, ধর্ষণের সময় পুরো ঘটনাটি মোবাইল ফোনে ভিডিও করা হয়। পরে তা ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেন সাফাত ও অন্যরা।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 345 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ