বাইশারীতে সন্ত্রাসীদের আতঙ্ক এস,আই মুসা পুনরায় ইনচার্জের দায়িত্বে

Print

বাইশারীতে সন্ত্রাসীদের আতঙ্ক এস,আই মুসা পুনরায় ইনচার্জের দায়িত্বেঃ
জে,জে বিশেষ প্রতিবেদকঃ

সন্ত্রাসীদের অভয়ারন্য দুর্গম পাহাড়ী জনপদ নাইক্ষ্যংছডি উপজেলার ক্রাইমজোন খ্যাত এলাকা বাইশারী। যেখানে মানুষ দিনে যেতে ও ভয় পেতো এক সময়। এখন রাত ১২টার পরও নিরাপদে দরজা খোলা রেখে ঘুমানো যায়।
এমন পরিস্থিতির গোপন রহস্য বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনী। পুলিশেই জনতা,জনতাই পুলিশ। সেবার মন মানসিকতায় কাজ করে বাইশারীর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এসআই মুসা বদলে দিয়েছে পুলিশের উপর কিছু মানুষের ভ্রান্ত ধারনা।
যার সফলতা হিসাবে আবারো দায়িত্বভার পেলেন বান্দরবান জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি বাইশারী তদন্ত কেন্দ্রের উপ-পরিদর্শক আবু মুসা।
জানা যায়, ২০১৬ সালের আগষ্টের প্রথম দিকে এস আই আবু মুসা বাইশারী তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ হিসেবে যোগদান করেন। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, অপরাধ প্রবনতা বাইশারীতে গত এক বছরে তিনি উল্লেখযোগ্য হারে অপরাধ কমিয়ে নিয়ন্ত্রন ও সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করায় জেলা পুলিশের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ তাকে আবারো একই কর্মস্থলে ইনচার্জ হিসেবে দায়িত্ব দেন ।
নাইক্ষ্যংছডি থানা ও জেলা পুলিশের সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগনের সাথে কথা বলে এ বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া গেছে। তাঁরা বলেন, কোন পুলিশ অফিসার ধারাবাহিক ভাবে কোন কর্মস্থলে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করতে পারলে কর্তৃপক্ষ সন্তুষ্ট হয়ে তাকে একই কর্মস্থলে পুনঃ বহাল করে থাকেন। সেদিক বিবেচনায় এস আই মুসাকে আবারো একই কর্মস্থলে পরবর্তী এক বছরের জন্য একই দায়িত্বে রাখা হয়েছে।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, সন্ত্রাসী জনপদ বাইশারীতে এক বছর আগে আলোচিত এক ভিক্ষুকে কুপিয়ে হত্যা, আ’লীগ নেতাকে জবাই করে হত্যা, অপহরন, ডাকাতি ও বোমা বিস্ফোরন সহ অসংখ্য অপরাধ ঘটলেও সেই আতঙ্কিত জনপদে এস আই মুসা যোগদান করার পর এলাকায় নেমে আসে শান্তির সুবাতাস।
এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশি টহল, গুরুত্বপূর্ন পয়েন্টে পুলিশী পোস্ট এবং বিশেষ নজরদারি সৃষ্টির মাধ্যমে এলাকাকে করে চুরি ও ডাকাত আর অপরাধ মুক্ত। স্থানীয় সুত্র জানায়, গত বছর এস আই আবু মুসা বাইশারীতে আসার পর থেকে এলাকার আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অভাবনীয় উন্নতি হয়েছে যা অতীতে কোন সময়ে দেখা যায়নি।
বাইশারীর বিভিন্ন পেশা শ্রেণীর মানুষের সাথে কথা বলে জানা যায়,গত এক বছরে বাইশারীতে দুয়েকটি অপহরনের ঘটনা ব্যতীত আর অন্যকোন অপরাধ যেমন চুরি,ডাকাতি, খুন এসবের কিছুই ঘটেনি। কোন অপরাধ ঘটার খবর পেলেই পুলিশ দ্রুত পৌঁছেছে ঘটনাস্থলে। এসব বিবেচনায় ক্রাইমজোন বলে পরিচিত বাইশারীর আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি উল্লেখযোগ্যভাবে উন্নত হয়েছে । এলাকাবাসী পরিশ্রমী ও দক্ষ এই পুলিশ কর্মকর্তাকে বাইশারীতে পুনঃ দায়িত্ব দেয়ায় বান্দরবান জেলা পুলিশের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেছেন।
বাইশারী ইউপির বর্তমান চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলম জানান, “আমার এলাকায় পুলিশের টহল ও ভূমিকা আগের চেয়ে অনেক ভাল। উপজেলার আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভায় বেশ কয়েকবার রেজুলেশন আকারে একথা স্বীকার করা হয়েছে যে বাইশারীতে গত এক বছরে চুরি,ডাকাতি ও খুনের ঘটনা ঘটেনি এবং এজন্য এস আই আবু মুসা সহ সকল পুলিশ সদস্যদেরকে এলাকাবাসীর পক্ষ হইতে সাধুবাদ জানানো হয়েছে”।
তিনি আরো জানান, কতিপয় সন্ত্রাসী ও রাজনীতির ছত্রছায়ায় থেকে যারা ডাকাত ও অপহরনকারীদেরকে আশ্রয় প্রশ্রয় দিয়ে এসব অপরাধের চেষ্টা করে, তারা মুলত এর সাহসী পুলিশ অফিসারের বদনাম রটাতে চেষ্টা করে বলে জানান।
এ বিষয়ে এস আই আবু মুসা জানান, গত এক বছরে তিনি বাইশারী এলাকাকে অপরাধমুক্ত রাখার আন্তরিক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন পুলিশ সুপারের নির্দেশে। এমনকি এলাকায় অপরাধ প্রবণতা শুন্যের কোটায় নামিয়ে আনতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।
অন্যদিকে এ বিষয়ে এএসপি (লামা সার্কেল) আবদুস সালাম জানান, “বাইশারীর মত ক্রাইম এলাকায় এস আই আবু মুসাকে কিছু বিশেষ বিবেচনায় পুনরায় ইনচার্জ হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। সে অপরাধ নিয়ন্ত্রনে সাফল্য দেখিয়েছে। পুলিশ সুপার মহোদয়ের ইচ্ছা অনিচ্ছার উপর এ ধরনের ইউনিট ইনচার্জের দায়িত্ব অর্পনের বিষয়গুলো নির্ভর করে থাকে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 95 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ