বিএনপির নীতিই ছিল খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হওয়া যাবে না

Print

বিএনপির সরকারের সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, তাদের নীতিই ছিল খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হওয়া হওয়া যাবে না। কিন্তু আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে দেশকে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ করার পাশাপাশি খাদ্য মজুদও করে।
রোববার (১৩ আগস্ট) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জাতীয় পুষ্টি পরিষদ মিলনায়তনে পরিষদের প্রথম সভায় তিনি এ কথা বলেন।

বিগত বিএনপি সরকারের প্রধান দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে ইঙ্গিত করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিএনপি নেত্রী বলেছিলেন, বাংলাদেশের খাদ্য স্বয়ংসম্পূর্ণ হওয়া ঠিক নয়, তাহলে বিদেশি সাহায্য পাওয়া হবে না। তাদের নীতিই ছিল স্বয়ংসম্পূর্ণ হওয়া যাবে না। বিদেশিদের কাছে হাত পেতে দেওয়া ছিল তাদের নীতি।
‘আমাদের নীতি আলাদা। আমরা ক্ষমতায় এসে জনমুখী পদক্ষেপ নিই। দেশকে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ
করি। চাহিদা পূরণের পাশাপাশি খাদ্য মজুদও করি।’
এসময় প্রধানমন্ত্রী জনগণের খাদ্য ও পুষ্টি নিশ্চিতে তার সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা তুলে ধরেন। উল্লেখ করেন শিশু ও মাতৃমৃত্যুর হার হ্রাসের বিষয়টিও।
তিনি বঙ্গবন্ধুকে নির্মমভাবে হত্যার কথা তুলে ধরে বলেন, বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে দেশ স্বাধীনতা লাভ করে যখন উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাচ্ছিল, যারা স্বাধীনতা চায়নি, তারা ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে নির্মমভাবে হত্যা করে। সেদিন তারা চারটি বাড়িতে আক্রমণ করে। পরে তারা জাতীয় চার নেতাকে হত্যা করে।
‘হত্যা-ক্যু ষড়যন্ত্রের মধ্য দিয়ে তারা ক্ষমতায় এসে দেশকে পিছিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু ২১ বছর পর ক্ষমতায় এসে আমরা আবার দেশকে গড়ার উদ্যোগ নিই।’

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 129 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ