বিদায় মাওলানা সাদ!

Print

অবশেষে দিল্লি ফিরে যাচ্ছেন মাওলানা সাদ। ইতোমধ্যেই তিনি বিমানবন্দরের পৌঁছেছেন বলে আওয়ার ইসলাম নিশ্চিত হয়েছে। তার সঙ্গে ফিরে যাচ্ছেন নিজামুদ্দিন মারকাজ থেকে বিশ্ব ইজতেমার জন্য আসা ১০ জনের জামাতও।
বিশ্ব ইজতিমায় অংশ নেয়ার জন্য মাওলানা সাদ গত ১০ জানুয়ারি ঢাকায় এসেছিলেন। ইজতেমায় অংশ নেয়ার কথা থাকলেও বিক্ষোভ প্রতিবাদ ও আপত্তির মুখে অংশ নিতে পারেননি।
তিনি ঢাকায় আসার পর বাংলাদেশের তাবলিগ জামাতের কেন্দ্রীয় মারকাজ মসজিদ কাকরাইলে ৩ দিন অবস্থান করেন এবং গতকাল জুমার নামাজের আগে দীর্ঘ বয়ান ও নামাজের ইমামতি করেন।
বয়ানে তিনি তার বিতর্কিত বক্তব্যের ভুল স্বীকারও করেন এবং আলেমদের পরামর্শ ও সিদ্ধান্ত সাধারণ মানুষকে গুরুত্বের সঙ্গে মানার দীক্ষা দেন।
তাবলিগ জামাতের স্থপতি হজরতজি ইলিয়াস কান্ধলভি রহ. এর বংশধর মাওলানা মুহাম্মাদ ২৪-২৫ বছর ইজতেমায় অংশগ্রহণ ও বয়ান করে আসছিলেন । বেশ কয়েক বছর যাবত মুনাজাতও পরিচালনা করেছেন তিনি।
তার আপত্তিকর বক্তব্যের কারণে ভারতের দারুল উলুম দেওবন্দ অসোন্তষ প্রকাশ করে এবং দেওবন্দের সঙ্গে সহমত পোষণ করেন বাংলাদেশের আলেম ও তাবলিগের অনেক মুরব্বি ও সাথী। সবশেষে তার বক্তব্য প্রত্যাহারের বিষয়টিতে সন্তোষ হতে পারেনি দারুল উলুম দেওবন্দ। আজ তিনি বিদায় নিচ্ছেন।
এদিকে এবারের ইজতেমায় মুনাজাত পরিচালনা করবেন কাকরাইল মারকাজরে শুরা সদস্য হাফেজ মাওলানা মুহাম্মাদ যুবায়ের।
বিশ্ব ইজতেমায় বরাবরই দিল্লি মারকাজ থেকে আগত মুরব্বিরাই সাধারণত শেষ মুনাজাত পরিচালনা করেন। কিন্তু মাওলানা সাদ ইজতেমায় না থাকায় এবার সে নিয়মের ব্যত্যয় ঘটছে বলে জানা যায়।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 100 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ