বিপিএলে ‘সোনার ছেলে’ বাটলার

Print

সাউথ আফ্রিকার টি-টোয়েন্টি গ্লোবাল লিগের সঙ্গে চুক্তিটা আগেই সেরে রেখেছেন জস বাটলার। কিন্তু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ফ্র্যাঞ্চাইজি কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস তার কাছে লোভনীয় প্রস্তাব পাঠায়। ফিরিয়ে দিতে পারেননি বাটলারও। রাজি হয়ে গেলেন। গ্লোবাল লিগ নয়, বিপিএলেই খেলবেন এই ইংলিশ উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান। দাম টাও বেশ চড়া। ২ লাখ পাউন্ড। বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ২ কোটি ১০ লাখের মত। যেখানে মাশরাফী-তামিমরা পাচ্ছেন ৮৫ বা ৮৬ লাখ করে। আর বাটলার তাদের সবাইকে পেছনে ফেলে সোনার ছেলের তকমাটা লুফে নিলেন।
প্রথম বিপিএলে দামি ক্রিকেটার ছিলেন শহীদ আফ্রিদি। তার মূল্য ছিল সাড়ে পাঁচ কোটি। দ্বিতীয় আসরের সর্বোচ্চ দামে সাকিব আল হাসানকে কিনে নেয় ঢাকা। সে বছর সাকিবের দাম উঠেছিল ২ কোটি ৯৫ লাখেরও অধিক। ২০১৫ সালে প্রায় দেড় কোটি টাকা দিয়ে ক্রিস গেইলকে দলে ভেড়ায় বরিশাল বুলস। এরপর গত আসরের দামি ক্রিকেটারও ছিলেন গেইল। জানা যায়, চার ম্যাচের জন্য তাকে প্রায় সাড়ে তিন কোটি টাকা পারিশ্রমিক দেন চট্টগ্রাম ভাইকিংস।

এবারই প্রথম বিপিএলে খেলবেন বাটলার। তাকে পুরো আসরেই পাচ্ছে কুমিল্লা। এখন পর্যন্ত ১৮৫ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন বাটলার, যার ১৬৫ টিতেই ব্যাট হাতে মাঠে নেমেছেন তিনি। ২৮.৭৭ গড়ে সেখানে তার রান ৩৭১২। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের টি-টোয়েন্টি লিগগুলোতে খেলেছেন বাটলার। প্রায় ১৫০ স্ট্রাইক রেটে তার ঝুলিতে জমা পড়েছে ২১টি অর্ধশতকও।
বাটলার ছাড়াও বেশ কয়েকজন বিদেশি তারকা দলে ভেড়ানোর কথা জানান দিয়েছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। যে তালিকায় আছেন আফগানিস্তানের রশিদ খান, মোহাম্মদ নবী, শ্রীলঙ্কার অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস, পাকিস্তানের শোয়েব মালিক, হাসান আলী, ইমরান খান জুনিয়র ও ফখর জামান। এছাড়া ওয়েস্ট ইন্ডিজের ড্যারেন ব্রাভোকে আনার চেষ্টা করছে দলটি।
এদিকে গত দুই মৌসুম তামিম ইকবাল খেলেছিলেন চিটাগাং ভাইকিংসের হয়ে। এবার আর সেই ঘরে নেই। চিটাগাং ছেড়ে তামিম এবার যোগ দিয়েছেন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সে। অপরদিকে কুমিল্লাকে শিরোপা পাইয়ে দেয়া দলনেতা মাশরাফি বিন মুর্তজাকে এবার ছেড়ে দিয়েছে দলটি। বাংলাদেশ দলের ওয়ানডে অধিনায়ক এবার যোগ দিয়েছেন রংপুর রাইডার্সে।
উল্লেখ্য, নতুন তারিখ অনুযায়ী বিপিএলের উদ্বোধন ৩১ অক্টোবর আর শুরু হবে ২ নভেম্বর। আর বিপিএলের খেলোয়াড় ড্রাফট অনুষ্ঠিত হবে সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি। ড্রাফটে প্রতিটি দলকে কমপক্ষে ১৩ জন স্থানীয় খেলোয়াড়কে নিতে হবে। ড্রাফটের তালিকায় থাকা বিদেশিদের মধ্যে কমপক্ষে দুজনকে নিতে হবে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 60 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ