বিষয়টি নিয়ে আমি কিছু বলতে চাই না

Print

অনেকদিন ধরেই চলছে কানাঘুষা। দুজন আর বাঁধা নেই এক সুতোয়। এমনকি মাস কয়েক হলো এক ছাদের নিচে বসবাসের পর্বও চুকিয়েছেন বলে শোনা যাচ্ছে বেশ জোরেশোরেই। এরা দেশীয় শোবিজের ব্যস্ত দুই তারকা নিলয় এবং শখ। ভালোবেসে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন গত বছরের ৭ই জানুয়ারি। এরপর সংসার পেতেছিলেন ঢাকার উত্তরায়। কিন্তু সে সংসারের চার দেয়ালে এখন আর দু’জনের দাম্পত্য জীবন সাজানো নেই বলেই শোনা যায় তাদের নানা নিকটজনের আলোচনায়। শখ নিলয়ের সংসার ছেড়ে গেছেন কয়েক মাস হলো। ফিরে গেছেন পুরানো ঢাকার বাবার বাড়িতে। বিষয়টি নিয়ে কথা বলার জন্য একাধিকবার তার সেলফোনে যোগাযোগ করেও কোনো সাড়া মেলেনি। আর নিলয়ের সেলফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, বিষয়টি নিয়ে আমি কিছু বলতে চাই না। কাজের কথা হলে বলবেন। ব্যক্তিজীবন নিয়ে কোনো কথা বলবো না। এই দুই কথা বলেই এড়িয়ে গেলেন নিলয়। তবে দাম্পত্য জীবনে কলহের জের ধরে দুজনের আলাদা থাকার বিষয়টি জলের মতো পরিষ্কার হয়ে গেছে তাদের ফেসবুকের ‘রিলেশনশিপ স্ট্যাটাস’ দেখে। ২০১৬ সালে বিয়ের পর পর শখ তার ‘রিলেশনশিপ স্ট্যাটাস’ পরিবর্তন করে ‘ম্যারিড টু নিলয় আলমগীর’ করেছিলেন। গত কিছুদিন ধরে সেটা আর নেই। এখন বদলে শখের ‘রিলেশনশিপ স্ট্যাটাস’ হয়ে গেছে ‘সিঙ্গেল’। মূলত এই পরিবর্তনের ফলেই জল্পনা শুরু হয়ে গেছে।
অন্যদিকে নিলয়ের রিলেশনশিপ স্ট্যাটাসেও নেই শখের নাম। শুধু তাই নয়, সেটা এখন তার ফেসবুক আইডির ‘অ্যাবাউট’ অপশনে ‘হাইড’ করে রাখা হয়েছে। তবে ফেসবুকের বিষয়টি বাদ দিলেও নিলয়-শখের সঙ্গে কাজ করা মিডিয়ার সহকর্মীদের কেউ কেউ বিষয়টি জানেন বলে নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানিয়েছেন। প্রসঙ্গত, একটি টেলিকম কোম্পানির বিজ্ঞাপনচিত্রে কাজ করতে গিয়ে সম্পর্ক ঘনিষ্ঠ হয় শখ-নিলয়ের। এরপর ধীরে ধীরে সেটা প্রেমে পরিণত হয়। তবে খুব বেশিদিন স্থায়ী হয়নি সেই প্রেমের সম্পর্ক। ভেঙে যায়। দুজন আলাদা পথে হাঁটা শুরু করেন। তবে ২০১৪ সালে ‘অল্প অল্প প্রেমের গল্প’ ছবি মুক্তির পর ফের তাদের সম্পর্ক জোড়া লাগে। পরে গেল বছর বিয়ে করে সংসার শুরু করেন দুজন। শুধু তাই নয়, বিয়ের পর দুজন মিলে ওমরাহ করতেও যান।

এদিকে মানবজমিনের সঙ্গে আলাপকালে নিলয় তার আসন্ন ঈদ ব্যস্ততার বিষয়েও কথা বলেন। এই উৎসবকে ঘিরে তার অভিনীত একাধিক নাটক ও টেলিছবি প্রচার হবে বিভিন্ন চ্যানেলে। এর মধ্যে রয়েছে কাজী শহিদুল ইসলামের রচনা ও সালাহউদ্দিন লাভলুর পরিচালনায় সাত পর্বের ধারাবাহিক ‘প্রেম করা নিষেধ’, গোলাম সোহরাব দোদুলের পরিচালনায় টেলিছবি ‘ময়ূর স্বপ্ন’; খণ্ড নাটক ‘নেতা ভার্সেস অভিনেতা’, মাসুম রেজার রচনায় কৌশিক শংকর দাশের পরিচালনায় টেলিছবি ‘অবশেষে গল্পটি প্রেমের’; খণ্ড নাটক ‘বিন্দু না রেখা’, দ্বীন মোহাম্মদ মন্টুর ‘কালোপরী’, শাকিব রায়হানের ‘উপহার’ এবং শাহীনা আক্তারের ‘ফেরারী বসন্ত’সহ আরো কয়েকটি।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 330 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ