মধ্যবয়সীদের কেন দিনে ১০ মিনিট জোরে হাঁটা জরুরি

Print

মধ্যবয়সীদের অনেকের মাঝেই আলস্য ভর করে বসে। তাই সুস্থ থাকার জন্য মধ্যবয়সীদেরকে জোরে হাঁটার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। কারণ এই বয়সের আলস্য স্বাস্থ্যের জন্য খুবই ক্ষতিকর।
পাবলিক হেলথ ইংল্যান্ডের কর্মকর্তাদের মতে, চল্লিশ বছর বয়সের পর থেকেই মানুষের শারীরিক সক্রিয়তা কমতে থাকে। তাই তারা ৪০ থেকে ৬০ বছর বয়সীদেরকে নিয়মিত জোরে হাঁটার পরামর্শ তাদের।

তাদের মতে দিনে শুধু মাত্র ১০ মিনিট দ্রুত গতিতে হাঁটলেই অনেক ধরনের স্বাস্থ্য ঝুঁকি এড়ানো সম্ভব। এমনকি অকাল মৃত্যুর ঝুঁকিও প্রায় ১৫ শতাংশ কমে যায়। তবে তাদের মতে, প্রতি ১০ জনের মধ্যে মাত্র চারজন ব্যক্তি ১০ মিনিট দ্রুত গতিতে হাঁটেন। তাও আবার মাসে মাত্র একবার বা তার চাইতেও কম।
প্রতিদিন হাঁটার অভ্যাস গড়ে তোলার জন্য এই সরকারী সংস্থাটি বিনামূল্যে মোবাইলে অ্যাপের ব্যবস্থাও করেছে। ‘অ্যাকটিভ টেন’ নামের এই অ্যাপে প্রতিদিনের হাঁটার সময় মনিটর করা হয় এবং নানান ধরনের টিপস দেয়া হয়।
পাবলিক হেলথ ইংল্যান্ডের ডেপুটি মেডিক্যাল ডিরেক্টর ডাক্তার জেনির মতে, প্রতিদিন বাজার করার জন্য মার্কেটে যাওয়ার সময় গাড়ি ব্যবহার না করে হাঁটা যায়। এমনকি দুপুরের খাবারের বিরতিতেও দশ মিনিট করে দ্রুত গতিতে হাঁটলে আরও বেশ কিছু বছর সুস্থভাবে বেঁচে থাকা সম্ভব।
একজন মধ্যবয়সী ব্যক্তির সপ্তাহে কমপক্ষে একশ পঞ্চাশ মিনিট শারীরিক ভাবে সক্রিয় থাকা জরুরি। প্রতিদিন ১০ মিনিট করে হাঁটলে সেটা পূরণ না হলেও শরীরে অনেক পরিবর্তন লক্ষ্য করা যায়। উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিকস, ওজন নিয়ন্ত্রণে চলে আসে। এছাড়াও দুশ্চিন্তা, বিষণ্ণতা, কোমর ব্যথাসহ নানান সমস্যা কমে যায় প্রতিদিন মাত্র ১০ মিনিট দ্রুত গতিতে হাঁটলে।
তাই মধ্যবয়সীদের সুস্থতার জন্য দ্রুত হাঁটার পরামর্শ তাদের।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 222 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ