মাশরাফির নেতৃত্বেই ওয়ানডে স্কোয়াড

Print
মাশরাফির নেতৃত্বেই ওয়ানডে স্কোয়াড
মাশরাফির নেতৃত্বেই ওয়ানডে স্কোয়াড

গল টেস্টে শ্রীলংকার কাছে ২৫৯ রানের বড় ব্যবধানে হেরেছে বাংলাদেশ। হতাশাজনক অবস্থার মধ্যেই টাইগারদের সামনে শততম টেস্ট। তাই গতকাল সংবাদ সম্মেলনে ক্রিকেটপ্রেমীদের একটা সুখবর দিলেন জাতীয় দলের নির্বাচক ও সাবেক অধিনায়ক হাবিবুল বাশার। তিনি জানান, শ্রীলংকা সফরেই মাঠে ফিরছেন সীমিত ওভারের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। তার নেতৃত্বেই আজ ওয়ানডে স্কোয়াড ঘোষণা করবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

মাশরাফির ফেরা নিয়ে বাশার বলেন, ‘মাশরাফি এখন ফুল রানআপে বোলিং করেছে। শ্রীলংকা সফরে যাওয়ার জন্য সে একেবারে ফিট। এর চেয়ে বেশি আমাদের আর কি চাই!’ সর্বশেষ নিউজিল্যান্ড সফরে ডান হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলি ভেঙে যাওয়ায় মাঠের বাইরে ছয় সপ্তাহের জন্য ছিটকে পড়েন মাশরাফি। মাউন্ট মঙ্গানুইয়ে মাশরাফির ব্যথায় কাতরানোর দৃশ্য এখনো অনেকের স্মৃতিতেই অমলিন। ব্যথায় কাতরাচ্ছেন মাশরাফি। ফুল টস ডেলিভারিতে কোরি অ্যান্ডারসনের সপাট ব্যাটিং, অন্যপ্রান্তে নিজেই ফিল্ডিং করতে গিয়ে আঙুলে আঘাত পান বাংলাদেশ অধিনায়ক। সঙ্গে সঙ্গেই মাঠ ছাড়েন তিনি। তাত্ক্ষণিক চিকিত্সা ও পরীক্ষা-নিরীক্ষা পর জানা যায়, বুড়ো আঙুলটাই ভেঙে ফেলেছেন তিনি। পুরোপুরি সেরে উঠতে সময় লাগবে চার থেকে ছয় সপ্তাহ। গত দুই মাস সেই দুঃসহ স্মৃতি বয়ে বেড়ানো আর সেরে ওঠার প্রক্রিয়ার মধ্যে কেটেছে মাশরাফির সময়। বাশার বলেন, ‘এ মুহূর্তে মাশরাফি সম্পূর্ণ সুস্থ। ওর ইনজুরির কোনো সমস্যা নেই।’

২৫ মার্চ ডাম্বুলার ওয়ানডে ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে দুই দলের সীমিত ওভারের লড়াই। এর আগে থাকবে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ। সে লক্ষ্যে ২০ মার্চ শ্রীলংকার উদ্দেশে দেশ ছাড়বেন কিছু ক্রিকেটার। তবে দেশ ছাড়ার আগে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচে অংশ নেবেন মাশরাফিরা। ২৫ মার্চ শুরু হওয়া ইমার্জিং কাপ সামনে রেখে জাতীয় দল ও অনূর্ধ্ব-২৩ এর মধ্যে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ আয়োজনের কথা ভাবছে বোর্ড। এ প্রসঙ্গে নির্বাচক বাশার বলেন, ‘আগামী ১৬ ও ১৮ তারিখে ওয়ানডে দল ও অনূর্ধ্ব-২৩ দলের খেলোয়াড়দের মাঝে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ আয়োজন করা হবে। মূলত এটি ইমার্জিং কাপের প্রস্তুতি ম্যাচ হলেও শ্রীলংকা সফরে ওয়ানডে দলে যারা থাকবেন; বিশেষ করে, মাশরাফি, নাসির, সোহানরা প্রস্তুতির সুযোগ পাবে।’ তিনি আরো বলেন, ‘ইনজুরির কারণে মাশরাফি মাঠের বাইরে ছিল। তাছাড়া বাকিরা ব্যস্ত ছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগ (বিসিএল) নিয়ে। লংগার ভার্সন থেকে ৫০ ওভার ক্রিকেট খেলার আগে ওরা গা গরমের ভালো সুযোগ পাবে। মূলত সেই চিন্তা করেই এ প্রস্তুতি ম্যাচের আয়োজন।’

এদিকে কলম্বোয় পা রেখেই গতকাল ঐচ্ছিক অনুশীলন করে বাংলাদেশ দল। অনুশীলনের ফাঁকে পি সারা ওভালের উইকেট নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করেন প্রধান কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে, বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ, ব্যাটিং কোচ থিলান সামারাবিরা ও ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন। অনুশীলন শেষে কোচ হাথুরুসিংহে বলেন, ‘ব্যাটিংয়ে আমাদের আরো উন্নতি করা প্রয়োজন। কখন আক্রমণাত্মক, আর কখন রক্ষণাত্মক খেলব— সেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে ব্যাটসম্যানদের। এটা সম্পূর্ণ মানসিক ব্যাপার।’ যোগ করেন, ‘তবে সিদ্ধান্ত যা-ই হোক, সেটা নিতে হবে দলের স্বার্থ ও ম্যাচের পরিস্থিতি বিবেচনা করে। পাশাপাশি বুঝতে হবে উইকেটের চরিত্র ও প্রতিপক্ষের পরিকল্পনা।’

গলের শেষ দিনে মুশফিকুর রহিমদের উইকেট বিলিয়ে আসার বিষয়টিতে একমত নন কোচ হাথুরু। তার ভাষায়, ‘উইকেট উপহার দিয়ে এসেছে, এ কথায় আমি একমত নই। কেউ-ই প্রতিপক্ষকে উইকেট উপহার দেয় না।’

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 68 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ