মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশনের নিয়মাবলী ও কত সিসিতে কত ফি? জানুন!

Print

একদিনে মোটর সাইকেলের রেজিস্ট্রেশন সুবিধা দিচ্ছে বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথোরিটি (বিআরটিএ)। আগামী বৃহস্পতিবার ‘আন্তর্জাতিক সিভিল সার্ভিস দিবস’ উপলক্ষে মানিক মিয়া অ্যাভিনিউয়ে স্পট রেজিস্ট্রেশনের সুযোগ দেবে বিআরটিএ।
প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সঙ্গে নিয়ে গিয়ে নির্দিষ্ট ফি জমা দিলেই সঙ্গে সঙ্গে রেজিস্ট্রেশন নম্বর পাওয়া যাবে।
১০০ সিসি বা এর কম এবং মোটর সাইকেলের ওজন ৯০ কেজির কম হলে মোট ৯ হাজার ৩১৩ টাকা ফি দিতে হবে। আর ১০০ সিসির উপরে মোটরসাইকেলের ফি ১০ হাজার ৯২৩ টাকা। বিআরটিএ’র ওয়েবসাইট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
রেজিস্ট্রেশনের জন্য যেসব কাগজ সঙ্গে আনতে হবে-
১. মালিক ও আমদানিকারক/ডিলার কর্তৃক যথাযথভাবে পূরণ ও স্বাক্ষর করা নির্ধারিত আবেদনপত্র।
২. মালিকের ৩ কপি সদ্য তোলা স্ট্যাম্প সাইজের রঙিন ছবি।
৩. বিল অব অ্যান্ট্রি, ইনভয়েস, বিল অব লেডিং ও এলসিএ কপি (ফটোকপি আমদানিকারক অথবা শোরুম মালিক কর্তৃক সত্যায়িত)
৪. সেল সার্টিফিকেট/সেল ইন্টিমেশন/বিক্রয় প্রমাণপত্র।
৫. প্যাকিং লিস্ট, ডেলিভারি চালান ও গেট পাস।
৬. (ক) মূসক-১, (খ) মূসক-১১(ক) এবং (গ) ভ্যাট পরিশোধের চালান।
৭. সিকেডি মোটরযানের ক্ষেত্রে বিআরটিএর টাইপ অনুমোদন ও অনুমোদিত সংযোজনী তালিকা।
৮. রেজিস্ট্রেশন ফি জমাদানির রসিদ।
৯. ব্যক্তি মালিকানাধীন আবেদনকারীর ক্ষেত্রে জাতীয় পরিচয়পত্র/পাসপোর্ট/ টেলিফোন বিল/ বিদ্যুৎ বিল ইত্যাদির যেকোনো একটির সত্যায়িত ফটোকপি এবং মালিক প্রতিষ্ঠান হলে প্রতিষ্ঠানের প্যাডে চিঠি।
১০. ১২৫ ও তদূর্ধ্ব সিসি ক্ষমতাসম্পন্ন মোটরসাইকেল রেজিস্ট্রেশনের ক্ষেত্রে ৫০ (পঞ্চাশ) টাকার নন-জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে অঙ্গীকারনামা (অঙ্গীকারনামার নমুনা ওয়েবসাইটে ও স্পটে পাওয়া যাবে)।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 258 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ